• রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮
  • " />

     

    "জার্মানির উচিত ছিল ওজিলের পাশে দাঁড়ানো"

     

     

    বিশ্বকাপে ছিলেন বর্ণহীন, দলও বাদ পরেছে গ্রুপ পর্ব থেকেই। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন জার্মানির এমন বিদায়ের দায়ভার খুব ভালোমতোই এসে পড়েছিল মেজুত ওজিলের কাঁধে। সাথে যোগ হয়েছিল তুরস্কের প্রেসিডেন্টের সাথে সেই বিতর্কিত বৈঠক নিয়ে সমালোচনা। ‘বর্ণবাদমূলক’ মন্তব্য শুনতে হয়েছে, এই অভিযোগ এনে শেষমেশ অবসরের ঘোষণা দেন ওজিল। জার্মান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট রেনহার্ড গ্রিনডেল বলছেন, জার্মানির উচিত ছিল ওই কঠিন সময়ে ওজিলের পাশে থাকা।

    মাত্র ২৯ বছর বয়সেই আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় বলেছেন ওজিল। এভাবে অভিমান করে ওজিলের বিদায় নেওয়াতে হতাশ গ্রিনডেল, ‘ওজিলকে যেভাবে আক্রমণ করা হচ্ছিল চারপাশ থেকে, আমার নিজেরই উচিত ছিল তাকে রক্ষা করা, তার পাশে দাঁড়ানো। এরকম মন্তব্য কিছুতেই মেনে নেওয়া যায় না। পুরো জার্মানিরই উচিত ছিল তার পাশে দাঁড়ানো। ফুটবল অ্যাসোসিয়েসনকে সে পাশে পায়নি, এর জন্য আমি তার কাছে ক্ষমা চাইছি।"

    ৮০ বছর পর বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে জার্মানি। অন্য দশজনের মতো গ্রিনডেল এই দায় ওজিলের ঘাড়ে চাপাতে চান না, ‘ আমরা একসাথে জিতি, একসাথে হারি। হারের জন্য একজন দায়ী করা দোষের কাজ। জার্মানির খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য দলের সবাই সমান দায়ী। এজন্য ওজিলের সাথে ওই আচরণ করা একদমই ঠিক হয়নি।’