• অস্ট্রেলিয়ার আরব আমিরাত সফর
  • " />

     

    "জেনেবুঝে ফিক্সিং করে নিজের পায়ে কুড়াল মারেন ক্রিকেটাররা"

    "জেনেবুঝে ফিক্সিং করে নিজের পায়ে কুড়াল মারেন ক্রিকেটাররা"    

    পাকিস্তান ক্রিকেটে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের কালো ছায়া যেন পিছু হটছে না। গত কয়েক বছরে পিএসএলে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছেন বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। আল জাজিরার নতুন ভিডিও তুলে ধরেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিক্সিংয়ের ভয়াবহতাই। পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বলছেন, সব জেনেবুঝেই যেসব ক্রিকেটার ম্যাচ পাতান, তারা নিজেরাই নিজের পায়ে কুড়াল মারেন।

    ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়াসহ টেস্ট খেলুড়ে দেশের ক্রিকেটারদের বিরুদ্ধে স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগ নতুনভাবে এনেছে আল জাজিরা। এর মাঝে আছে ২০১১ বিশ্বকাপের ম্যাচও। পাকিস্তান সুপার লিগে স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের নিষিদ্ধ হওয়ার পর জাতীয় দলের অন্যদের দিকেও উঠেছে সন্দেহের তীর।

    সরফরাজ মনে করেন, জেনেশুনে কেউ ফিক্সিং করলে সেটা হবে বোকামি, ‘পিসিবি তরুণ বয়স থেকেই ক্রিকেটারদের ফিক্সিংয়ের ব্যাপারে বোঝায়। আমি ২০০৬ সাল থেকে পিসিবিকে কাছে থেকে দেখছি। আমি নিজেই অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটারদের এই ব্যাপারে ক্লাস নিয়েছি। ক্রিকেটারদের আর দায়িত্ববান হতে হবে। কোনটা ঠিক আর কোনটা ভুল, তারা সেটা জানে। তারপরেও যদি তারা ম্যাচ পাতায়, তাহলে সেটা নিজের পায়ে কুড়াল মারার সমান হবে।’

    কিছুদিন আগেই ম্যাচ পাতানোর দায়ে প্রায় ছয় বছর আগে নিষিদ্ধ হওয়া পাকিস্তান স্পিনার দানিশ কানেরিয়া স্বীকারোক্তিমূলক সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন। সেখানে কানেরিয়া বলেন, জুয়ারিকে তিনি প্রথমে ভক্ত ভেবেই ভুল করেছিলেন। সরফরাজ বলছেন, ভক্ত ভেবে জুয়াড়ির সাথে কথা বলাটা ক্রিকেটারদের দোষ নয়, ‘ভক্ত সেজেই তো তারা আসে। ওইসব জুয়াড়িদের সাথে কথা বলাটা দোষের নয়, কারণ ক্রিকেটাররা তো আর জানছে না ওরা জুয়াড়ি! অনেকেই এসে ছবি তুলতে চায়, তাদের সাথে ছবি না তুললে আবার আমাদেরই খারাপ দেখান হয় মিডিয়াতে!’

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন