• ফুটবল

রেফারি আমাকে অসম্মানজনক কথা বলেছেন: নেইমার

 ​

 

ম্যাচে তখন ১-১ গোলে সমতা। চ্যাম্পিয়নস লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার রাস্তা সুগম করার জন্য জয়ের জন্য মরিয়া ছিল পিএসজি। শেষ মুহূর্তে ফ্রি কিক থেকে গোলের চেষ্টাও ব্যর্থ হয়েছে নেইমারের। সেই ফ্রি কিককে ঘিরেই রেফারির সাথে তর্কে জড়িয়ে হলুদ কার্ড দেখেছেন নেইমার। ম্যাচ শেষে নেইমার বলছেন, হলুদ কার্ড দেখানোর পাশাপাশি রেফারি তাকে বেশ কিছু অসম্মানজনক কথাও শুনিয়েছেন।

শেষ বাঁশি বাজানোর কিছু সময় আগে ফ্রি কিক নিতে যাচ্ছিলেন নেইমার। তবে সেই কিক নিতে অনেকটা সময় নিয়েছিলেন তিনি। নেইমার বারবার রেফারি কুইপার্সকে বলছিলেন, নাপোলির ডিফেন্ডাররা ঠিক দূরত্বে দাড়ায়নি। তর্কের এক পর্যায়ে তাকে হলুদ কার্ড দেখান রেফারি। সেখান থেকে সরে যাওয়ার আগে রেফারিকে উদ্দেশ্য করে তাচ্ছিলের হাততালিও দিয়েছিলেন নেইমার। শেষ পর্যন্ত ওই ফ্রি কিক থেকে গোল হয়নি, ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে পিএসজি।

নেইমার জানালেন, তর্কের সময় রেফারি তাকে অসম্মানজনক কথা বলেছেন, ‘রেফারি আমাকে এমন কিছু বলেছেন যা তাঁর বলা উচিত হয়নি। ওটা খুবই অসম্মানজনক ছিল। সেগুলো আমি আর বলতে চাই না। এটা নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের কারো কিছু বলা দরকার ছিল। তিনি আমার সাথে এরকম ব্যবহার কিছুতেই করতে পারেন না। আমাদের বলা হয় মাঠে রেফারিদের সম্মান দেখাতে। আমরাও বিনিময়ে সম্মানটা পেতেই পারি!’

কুইপার্স আসলে নেইমারকে কি বলেছিলেন, সেটা জানা যায়নি। শুধু নেইমারের সাথে এই ব্যবহার নয়, পিএসজির সবাই কুইপার্সের ওপর চটেছেন ম্যাচের বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েও। কোচ টমাস টুখেল মনে করেন, পিএসজিকে প্রাপ্য পেনাল্টি দেননি কুইপার্স। এছাড়া নাপোলির পেনাল্টির আগে অফ সাইডের সিদ্ধান্তও নাকি দেননি রেফারি। এই ঘটনায় চ্যাম্পিয়নস লিগে ভিএআর আনার দাবিও তুলেছেন পিএসজি প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলায়ফি।