• ফুটবল

মোনাকোতেই গেলেন ফাব্রিগাস

নটিংহ্যাম ফরেস্টের বিপক্ষে এফএ কাপের ম্যাচে অশ্রুসজল নয়নে বিদায় জানিয়েছিলেন চেলসিকে। নিশ্চিত হয়েছিল, ইংল্যান্ডে দুই দফায় মোট ১২ বছর কাটানোর পর অন্য কোথাও যাচ্ছেন সেস্ক ফাব্রিগাস। সবচেয়ে জোরেশোরে শোনা যাচ্ছিল এএস মোনাকোর নাম। শেষ পর্যন্ত হলও তা-ই। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজ ছেড়ে ২০২২ সাল পর্যন্ত মোনাকোর সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন স্প্যানিশ মিডফিল্ডার।

ফাব্রিগাস যে চেলসি ছাড়বেন, তার আভাসটা অবশ্য পাওয়া যাচ্ছিল মৌসুমের শুরু থেকেই। ফর্মহীনতা, ইনজুরি, নতুন ম্যানেজার মরিজিও সারির দলে সুযোগ না পাওয়া- সব মিলিয়ে ফাব্রিগাস নিজেও হয়ত বুঝতে পারছিলেন, চেলসিতে শেষ সময়টা ঘনিয়ে আসছে তার। ১২ বছরে ইংল্যান্ডের অন্যতম সফল দুই ক্লাব চেলসি এবং আর্সেনালে মোট ৫০১ ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। গোল করেছেন ৮১টি, অ্যাসিস্ট ১৪৯টি। প্রিমিয়ার লিগের সর্বকালের ইতিহাসে তার চেয়ে বেশি অ্যাসিস্ট আছে কেবল রায়ান গিগসের। প্রিমিয়ার লিগ এবং এফএ কাপ জিতেছেন ২বার করে। প্রিমিয়ার লিগের এক ম্যাচে সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টের রেকর্ডটাও তার (৪), ৪ মৌসুমে হয়েছেন সর্বোচ্চ অ্যাসিস্টদাতা। প্রিমিয়ার লিগে মাত্র ৪ জন ফুটবলারের ৫০-এর বেশি গোল এবং ১০০-এর বেশি অ্যাসিস্ট আছে, এর মধ্যে একজন তিনি। ফিফার 'গোল্ডেন বয়' অ্যাওয়ার্ডও আছে তার ঝুলিতে। আর্সেনালের বর্ষসেরা খেলোয়াড় হয়েছেন ২বার। 

 

 

বদলি কেনার আগে ফাব্রিগাসকে ছাড়া হবে না- জানিয়েছিল চেলসি। তবে শেষ পর্যন্ত তার মোনাকোতে পাড়ি জমানোর পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি চেলসি। ২০১৮-১৯ মৌসুমটা একেবারেই ভাল যাচ্ছে না মোনাকোর। দুই বছর আগেও লিগ জেতা দলটি আছে টেবিলের ১৯ নম্বরে। দলের দুর্দিনে এই মিডফিল্ডারকে দলে ভেড়াতে পেরে স্বস্তিই পেয়েছে মোনাকো। দারুণ এক ভিডিও দিয়েই ফাব্রিগাসকে স্বাগতম জানিয়েছে তারা। মোনাকোতে ছোটখাট একটা 'পুনর্মিলনী'-ও হয়ে গেছে ফাব্রিগাসের। ক্লাবটির কোচ থিয়েরি অঁরির সাথে একটা সময় আর্সেনালেই খেলতেন 'সেস্ক'।