• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    প্রেসিডেন্টের অনুরোধে ঘানার স্কোয়াডে ফিরলেন জিয়ান

    আগামী মাস থেকে শুরু হতে যাওয়া আফ্রিকান কাপ অফ নেশনসে ঘানার স্কোয়াডে ডাক পেয়েছিলেন আসামোয়াহ জিয়ান। কিন্তু অধিনায়কত্ব না পাওয়ায় অভিমানে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর ঘোষণা করেছিলেন তিনি। আফ্রিকার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ের মাসখানেক আগে অধিনায়কের এমন সিদ্ধান্তে এগিয়ে এসেছেন ঘানার প্রেসিডেন্ট, কাজও হয়েছে তাতে। ঘানা প্রেসিডেন্টের অনুরোধে অবসর ভেঙ্গে ঘানার স্কোয়াডে ফিরেছেন জিয়ান।

     

     

    গতকাল অধিনায়কত্ব না পাওয়ায় আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতিতে অবসরের ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি, 'পরিবারের ও বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনার পর, জাতীয় দলের একজন ফুটবলার ও অধিনায়ক হিসেবে আমি বলতে চাই- যদি কোচ এই টুর্নামেন্টের জন্য কোচ আমাকে দলে রাখার পরও অধিনায়কত্ব অন্য কাউকে দিতে চায়, সেক্ষেত্রে আমি দল থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করতে চাই। এবং  আমি জাতীয় দল থেকেও স্থায়ীভাবে অবসরে যেতে চাচ্ছি।' স্কোয়াডে ফিরলেও অধিনায়কত্ব নিয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি। তবে প্রেসিডেন্টের অনুরোধ ফেলতে পারেননি জিয়ান, 'প্রেসিডেন্টের কথা অগ্রাহ্য করার নয়। তিনি আমাদের জাতির পিতা। তার অনুরোধেই ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রেসিডেন্ট নানা আদ্দো ডাঙ্কওয়া আকুফো-আদ্দো আমার অবসরের ঘোষণার পর আমাকে অনুরোধ করেছিলেন সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে। এখন আমি শুধুমাত্র ঘানাকে আফ্রিকান কাপ অফ নেশনস জেতানোর চিন্তাই করছি।'

     

     

    ৩৩ বছর বয়সী জিয়ান ১০৬ ম্যাচে ঘানার হয়ে করেছেন ৫১ গোল। 'ব্ল্যাক স্টার'দের সর্বোচ্চ গোলদাতাও তিনি। ২০০৬, ২০১০, ২০১৪ বিশ্বকাপে গোল করার রেকর্ডও আছে তার। আফ্রিকান কাপ অফ নেশনসে খেলেছেন ৫বার। ২০১০ বিশ্বকাপে লুইস সুয়ারেজের উরুগুয়ের কাছে টাইব্রেকারে না হারলে হয়তো সেমিতেও খেলতে পারত ঘানা। ২০১৭ সালের পর জাতীয় দলে অনিয়মিত হয়ে পড়েছিলেন জিয়ান। ক্লাবের হয়েও ছিলেন বিবর্ণ। এবার আফ্রিকান কাপ অফ নেশনস দিয়েই ফেরার কথা ছিল জিয়ানের। অধিনায়কত্ব নিয়ে নিশ্চয়তা না থাকলেও ঘানার স্কোয়াডে ঠিকই ফিরছেন জিয়ান।