• ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান
  • " />

     

    • ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান

    পিএসজির অনুশীলনে যোগ না দিয়ে শাস্তির মুখোমুখি নেইমার

    দিন যত যাচ্ছে, নেইমারের বার্সেলোনাতে ফেরার গুঞ্জনটাও ততো জোরালো হচ্ছে। সেই গুঞ্জনের আগুনে ঘি ঢাললেন খোদ নেইমারই। পিএসজির প্রাক-মৌসুমের অনুশীলনে যোগ দেননি এই ব্রাজিলিয়ান। অনুশীলনে যোগ না দেওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নিতে যাচ্ছে ফ্রেঞ্চ ক্লাবটি। এই ঘটনার পরপরই পিএসজির স্পোর্টিং ডিরেক্টর লিওনার্দো লা পেরিসিয়ান পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, নেইমার চাইলেই পিএসজি ছাড়তে পারেন। নেইমারকে বিক্রি করার ব্যাপার বার্সার সাথে আলোচনা হওয়ার ব্যাপারটাও স্বীকার করেছেন তিনি।

    গতকাল থেকে দলের অন্যদের সাথে পিএসজির অনুশীলনে যোগ দেওয়ার কথা ছিল নেইমারের। কিন্তু ব্রাজিল থেকে ফ্রান্সে ফেরেননি তিনি। তাঁর এমন কাজে মোটেও খুশি হয়নি ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এক অফিশিয়াল বিবৃতিতে পিএসজি আভাস দিয়েছে, তাঁরা নেইমারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে, ‘৮ জুলাই তাঁর অনুশীলনে যোগ দেওয়ার কথা ছিল। নেইমার যথাসময়ে অনুশীলনে যোগ দিতে আসেননি। তিনি এই ব্যাপারে ক্লাবের থেকে কোন অনুমতিও নেননি। এমন অবস্থা কখনোই কাম্য নয়।’ 

    কিছুদিন আগে বার্সা প্রেসিডেন্ট জোসেফ বার্তোমেউ জানিয়েছিলেন, নেইমার বার্সাতে আসতে চাইলেও পিএসজি তাঁকে ছাড়তে চায় না। লিওনার্দো অবশ্য সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, সবাই খুশি থাকে এমন চুক্তি হলে নেইমার পিএসজি ছাড়তে পারে, ‘নেইমার চাইলেই পিএসজি ছাড়তে পারে, যদি সেরকম একটা চুক্তি হয়। তবে এখন পর্যন্ত আমরা তাকে কেনার জন্য কোন প্রস্তাব পাইনি। আর সেটা একদিনেও হওয়া সম্ভব না। এটা পরিষ্কার যে নেইমার পিএসজি ছাড়তে চায়। কিন্তু ফুটবলে আপনি আজকে যা বলবেন, কালকে সেটা নাও বলতে পারেন! তাঁর ব্যাপারে সবাই সবকিছুই জানে। এখনো পিএসজির সাথে তাঁর তিন বছরের চুক্তি বাকি। যেহেতু আমরা কোন প্রস্তাব পাইনি, তাই এটা নিয়ে আলোচনা করাও ঠিক হবে না।’ 

    লিওনার্দো স্বীকার করছেন, বার্সেলোনার সাথে নেইমারকে নিয়ে তাদের আলোচনা হয়েছে, ‘আমরা কোন প্রস্তাব না পেলেও এই ব্যাপারে বার্সেলোনার সাথে আলাপ হয়েছে। তাঁরা নেইমারকে কিনতে চেয়েছিল, আমরা বিক্রি করতে চাইনি। তাঁরা নেইমারকে কেনার মতো অবস্থায় নেই। আমরা চাই পিএসজিতে এমন ফুটবলাররা থাকুক যারা সত্যিই এখানে থাকতে চায়, ক্লাবের হয়ে বড় কিছু করতে চায়। আমাদের ওপর দয়া করে থাকবে কেউ, সেটা আমরা চাই না।’