• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ভিএআরকে বড় সমস্যা মানছেন ক্লপ

    ভিএআর নিয়ে কোচদের আপত্তির খবরটা এখন আর নতুন কিছু নয়। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ভিএআর আসার পর থেকে বহুবার এ নিয়ে বিতর্ক উঠেছে। গতকাল অ্যাস্টন ভিলার বিপক্ষে লিভারপুলের ম্যাচেও রেফারি কিছু বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দিয়েছেন ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সাহায্য নিয়ে। ম্যাচ শেষে লিভারপুল কোচ ইউর্গেন ক্লপ বলছেন, ভিএআর বড় একটা সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। 

    ভিলা পার্কে প্রথমে পিছিয়ে পড়ে লিভারপুল। ভিলার ত্রেজেগের গোলটা নিয়ে ছিল বিতর্ক। লিভারপুল দাবি করে, অফসাইড ছিলেন ত্রেজেগে। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোলের সিদ্ধান্ত দেন রেফারি। প্রথমার্ধে ভিএআরের কারণে ম্যাচে ফেরা হয়নি ক্লপের দলের। সাদিও মানের পাসে রবার্তো ফিরমিনো গোল করলেও ভিএআরে সেটা অফসাইডের কারণে বাতিল হয়। ৭৪ মিনিটে অ্যালেক্স চেম্বারলাইনের শটে ভিলার বোজর্ন এঞ্জেলসের বিরুদ্ধে হ্যান্ডবলের অভিযোগ উঠলেও সেটা আমলে নেননি রেফারি। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ২-১ গোলের স্বস্তির জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লিভারপুল। 

    ফিরমিনোর যে অফসাইড নিয়ে উঠেছে বিতর্ক

     

    ম্যাচ শেষে ক্লপ বলছেন, ভিএআর সমস্যা সমাধানের চেয়ে আরও সমস্যা বাড়িয়ে দিয়েছে, ‘ভিএআর আসলেই এখন বড় সমস্যা। সবাই এটা নিয়ে আলোচনা করে, হাসাহাসি করে। কিন্তু ব্যাপারটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অনেক গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে এটার সাহায্য নিতে হয়। এটা কোনো হাসির বিষয় না। কোচরা ম্যাচ হেরে বরখাস্ত হন। আমি এই ইস্যুকে বড় করতে চাচ্ছি না। তবে এই ব্যাপারটা আরও পরিষ্কার করতে হবে।’ 

    বোজর্নের হ্যান্ডবলটা পেনাল্টি দেওয়া উচিত ছিল রেফারির, মানছেন ক্লপ, ‘ঐ হ্যান্ডবলের ঘটনাটা সবার নজর এড়িয়ে গেছে কারণ রেফারি বাঁশি বাজাননি। যদি তিনি সেটা করতেন তাহলে এটা নিয়ে আলোচনা হতো। চেম্বারলাইনের শট বোজর্নের হাতে লেগেছিল, এটা আগের দিনে পেনাল্টিই দেওয়া হতো। কিছু সময় ভিএআরের সিদ্ধান্ত আপনার পক্ষে যাবে, কিছু সময় যাবে না। এটায় আমার কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু আমাদের এটা নিশ্চিত করতে হবে যেন এই পদ্ধতি খেলায় সাহায্য করে, আরও ঝামেলা যেন না বাড়ায়। আমার মনে হয় সবাই এটা নিয়ে ভাবছেন।’