• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    গোমেজকে নিয়ে সুসংবাদ দিল এভারটন

    টটেনহাম হটস্পারের বিপক্ষে ম্যাচে পা ভেঙে স্ট্রেচারে করে মাঠ ছেড়েছিলেন এভারটন মিডফিল্ডার আন্দ্রে গোমেজ। ম্যাচের পরদিনই তার পায়ে অস্ত্রোপচার করেছিল এভারটনের চিকিৎসকেরা। ৪ নভেম্বর, সোমবার টুইটারে এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে এভারটন নিশ্চিত করেছে, অস্ত্রোপচার ভালভাবে সফল হয়েছে গোমেজের। 

    নিজেদের অফিশিয়াল টুইটারে এভারটন লিখেছে, "আজ (৪ নভেম্বর) আন্দ্রে গোমেজের ডান অ্যাঙ্কেলের অস্ত্রোপচার খুব ভালভাবেই সম্পন্ন হয়েছে। আন্দ্রে আপাতত কিছুদিন হাসপাতালেই থাকবে। এরপর আন্দ্রে তার পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার জন্য ইউএসএম ফিঞ্চ ফার্মে ফিরবে, যেখানে ক্লাবের চিকিৎসকেরা তার দেখভাল করবেন। আন্দ্রে পুরোপুরিভাবেই সেরে উঠবে- সে প্রত্যাশাই করছি আমরা। আন্দ্রের পক্ষ থেকে আমরা এভারটন এবং বিশ্বের সকল প্রান্ত থেকে অসংখ্য ফুটবল সমর্থকদের চমৎকার সব বার্তার জন্য ধন্যবাদ জানাতে চাই।"

     

     

    স্পার্সের বিপক্ষে নিজেদের ম্যাচের ৭৯ মিনিটে হিউঙ-মিন সনের ট্যাকেলে পড়ে যান গোমেজ। পা টার্ফে আটকে যাওয়া অবস্থায় সার্জ অরিয়েরের সাথে সংঘর্ষে ডান অ্যাঙ্কেল ভেঙে যায় তার। মাঠে প্রায় ছয় মিনিট সেবা নিয়ে স্ট্রেচারে মাঠ ছাড়েন বার্সেলোনা থেকে ধারে আসা গোমেজ। সনকে প্রথমে হলুদ কার্ড দেখালেও সিদ্ধান্ত বদলে লাল কার্ড দেখান রেফারি মার্টিন অ্যাটকিনসন। লাল কার্ডের আগেই গোমেজের ইনজুরি দেখে কেঁদে ফেলেন সন, মাঠে দু'হাত তুলে প্রার্থনা করতে থাকেন অরিয়ের।

    গোমেজের ইনজুরির কারণে ১২ মিনিট অতিরিক্ত সময় দেওয়া হয়, ৯৭ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান চেঙ্ক তোসুন। অতিরিক্ত সময়ে গোল করে পয়েন্ট ছিনিয়ে আনলেও তোসুন নিজেও মানসিকভাবে বিপর্যন্ত ছিলেন। ম্যাচ শেষে বলেছেন, "দরকার হলে আমরা ৫-০ গোলে হারতাম; কিন্তু তারপরও আন্দ্রের ইনজুরিটা যেন না হত। এসব ঘটনার সামনে ফুটবলের হারজিত কিছুই না।"

    "আন্দ্রের সুস্থতা কামনা করছি, আশা করি সে যেন দ্রুতই ফিরতে পারে আমাদের মাঝে।" তোসুনের সাথে একমত মিডফিল্ডার ফাবিয়ান ডেলফও, ম্যাচ শেষে বলেছেন, "ফলাফল নিয়ে কেউই ভাবছি না আমরা। আন্দ্রে আমাদের ভাইয়ের মত, তার ইনজুরির কারণে সবাই-ই কিছুটা বিপর্যস্ত মানসিকভাবে।" গোমেজকে ট্যাকেল করা লাল কার্ড দেখা সন নিজেও ছিলেন বিপর্যস্ত, জানিয়েছেন সতীর্থ ড্যালে আলি।