• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    অ্যানফিল্ডে এডারসনকে পাচ্ছে না ম্যান সিটি

    আটালান্টার বিপক্ষে গত সপ্তাহে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচের হাফটাইমে ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছেড়েছিলেন ম্যানচেস্টার সিটি গোলরক্ষক এডারসন মোরায়েস। দিন তিনেক পরই লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যাচে তার খেলা নিয়ে ছিল জোর সংশয়। সিটি সমর্থকদের সে আশঙ্কাই শেষ পর্যন্ত হল সত্যি, লিভারপুলের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সিটি ম্যানেজার পেপ গার্দিওলা নিজেই নিশ্চিত করেছেন; অ্যানফিল্ডে এডারসনকে পাচ্ছে না সিটি।

    এডারসনের ইনজুরির পর লিভারপুলের ম্যাচের আগে যে তার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হবে গার্দিওলাকে, সেটা অবশ্য অনুমিতই ছিল। ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষকের ফিটনেসের প্রশ্ন উঠতেই স্প্যানিশ ম্যানেজার নিশ্চিত করেছেন; ইনজুরির কারণে ছিটকে গেছেন এডারসন, "আটালান্টার বিপক্ষে এডারসন মাংসপেশির ইনজুরিতে পড়ে মাঠ ছেড়েছিল। কতদিন তাকে মাঠের বাইরে থাকতে হচ্ছে, সেটা অবশ্য জানি না। তবে লিভারপুলের বিপক্ষে নিশ্চিতভাবেই তাকে পাচ্ছি না আমরা।"

     

     

    অ্যানফিল্ডে তাই সিটির গোলবারের নিচে দেখা যাবে ক্লদিও ব্রাভোকে, আটালান্টার বিপক্ষে দ্বিতীয়ার্ধে যিনি দেখেছিলেন লাল কার্ড। প্রিমিয়ার লিগে ব্রাভোর শেষ ম্যাচ ছিল প্রায় দেড় বছর আগে। কিন্তু তারপরও ব্রাভোতে পূর্ণ আস্থা রাখছেন গার্দিওলা, "এডারসন ছাড়াও আমাদের আরও একজন বিশ্বমানের গোলরক্ষক আছে। আমরা এফএ কাপ এবং লিগ কাপ জিতেছিলাম ব্রাভোর জন্যই। সে দারুণ অভিজ্ঞ একজন গোলরক্ষক।"

    আটালান্টার বিপক্ষে পারফরম্যান্সের পরও ব্রাভোর ওপর এত আস্থা কেন, এমন প্রশ্নে কিছুটা চটে যান গার্দিওলা, "এক ম্যাচ দিয়ে কোনো ফুটবলারকে বিচার করা যায় না। আমি কেন ক্লদিওর ওপর বিশ্বাস রাখব না? আমার ম্যানেজার আমার সামর্থ্যে সন্দিহান হলে আমি কখনোই সে দলে থাকতে চাইতাম না।"

    "আমি প্রতিদিন অনুশীলনে তাকে দেখি, সে নিজের পুরোটাই নিংড়ে দেয় সবসময়। অ্যানফিল্ডে আমরা হারলেও সেটা শুধু ক্লদিওর কারণে হবে, এমনটা কখনোই না। সে অনেকদিন ধরেই সর্বোচ্চ পর্যায়ে খেলে আসছে, কোপা আমেরিকাও জিতেছে চিলির হয়ে। তাকে তার প্রাপ্য সম্মানটাই দেওয়া উচিত সবার। সে একজন দুর্দান্ত গোলরক্ষক।"