• জাতীয় ক্রিকেট লিগ
  • " />

     

    সতীর্থ পিটিয়ে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ শাহাদাত?

    ভুল কারণে আবারও শিরোনাম হলেন পেসার শাহাদাত হোসেন রাজীব। এবার জাতীয় লিগের ম্যাচে ঢাকা বিভাগের এই পেসার পিটিয়েছেন একই দলের ক্রিকেটার আরাফাত সানি জুনিয়রকে। ক্রিকবাজ বলছে, এই ঘটনার জন্য এক বছরের জন্য বিসিবির সব ধরনের টুর্নামেন্ট করা হতে পারে শাহাদাতকে। এর মধ্যেই এই রাউন্ডের ম্যাচ থেকে নিষিদ্ধ হয়েছেন শাহাদাত, আজ ঢাকার হয়ে মাঠে নামতে পারেননি।

    কাল খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে হয়েছে এই ঘটনা। বোলিং করার সময় শাহাদাত বলের এক পাশ ঘষে দিতে বলেছিলেন সতীর্থ সানিকে। কিন্তু সেটা করতে অস্বীকৃতি জানান। খেপে গিয়ে শাহাদাত মাঠেই সতীর্থের গায়ে হাত তোলেন, চড় থাপ্পড় দেন। সেদিনই তাকে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করা হয়। আজ ক্রিকবাজকে ম্যাচ রেফারি আকতার আহমেদ বলেছেন, শাহাদাতের ঘটনা তিনি দেখেছেন। এ নিয়ে বিসিবিকে তার প্রতিবেদনও জমা দিয়েছেন। তার মতে, এটা লেভেল ৪ ধরনের অপরাধ। যেটার জন্য বড় শাস্তিই প্রাপ্য।

    কিন্তু কত বড় শাস্তি হবে শাহাদাতের? ক্রিকবাজকে বিসিবির এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, লেভেল ৪ অপরাধের শাস্তি হিসেবে এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হতে পারেন শাহাদাত। ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও দিতে হতে পারে তাকে। এর মধ্যেই শাহাদাত তার অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছেন। বিসিবির টেকনিক্যাল কমিটি এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে।

    এদিকে ক্রিকবাজকে শাহাদাত ওই ঘটনার জন্য তার দায় স্বীকার করেছেন। তবে বলেছেন, সানিকে বল ঘষতে বলায় অস্বীকৃতি জানিয়ে শাহাদাতের সঙ্গে বেয়াদবি করেছেন তিনি। সেজন্যই মেজাজ হারিয়ে কাণ্ডটা করেছেন বলে স্বীকার করেছেন শাহাদাত।

    জাতীয় দলের এই পেসার এর আগে গৃহকর্মী পেটানোর জন্য কয়েক মাস জেলও খেটেছেন। ২০১৫ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে সর্বশেষ জাতীয় দলের হয়ে নেমেছিলেন শাহাদাত।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন