• ইংল্যান্ডের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর
  • " />

     

    'ব্যস্ত সূচি'র চাপ কমাতে পাকিস্তান সফর করছে না দক্ষিণ আফ্রিকা

    ‘ব্যস্ত সূচি’র চাপের কারণ দেখিয়ে পাকিস্তান সফর আপাতত বাতিল করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। মার্চে তিনটি টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলতে পাকিস্তান যাওয়ার কথা ছিল তাদের। সফরটি সামনে রেখে মার্চে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) সময় নিরাপত্তা অবস্থা পর্যবেক্ষণের জন্য একটি প্রতিনিধিদল পাঠানোর কথা ছিল প্রোটিয়াদের। তবে সে সফরের পরিকল্পনা থেকেই আপাতত সরে এসেছে তারা। 

    একের পর এক সিরিজের ফলে ক্রিকেটারদের ওপর যাতে অতিরিক্ত চাপ না পড়ে সেজন্য এমন সিদ্ধান্ত, দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ড মিলে পরে সুযোগ-সুবিধা মতো সময় নির্ধারিত করে সফরটি আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে ক্রিকইনফো।

    বর্তমানে ইংল্যান্ডের সাথে তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজ খেলছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ইংল্যান্ডের এই সফরে এর আগে চার টেস্ট এবং তিনটি ওয়ানডের সিরিজেও অংশ নিয়েছে প্রোটিয়ারা। এই সিরিজ শেষ করতে না করতেই অস্ট্রেলিয়া এসে পৌঁছুবে দেশটিতে। অজিদের বিপক্ষে ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে তিন টি-টোয়েন্টি এবং তিন ওয়ানডের সিরিজে মাঠে নামবে প্রোটিয়ারা। 

    সে সফর শেষ করেই ভারতের উদ্দেশ্যে উড়াল দেবেন কুইন্টন ডি ককরা। ১২, ১৫ এবং ১৮ মার্চ ভারতের বিপক্ষে তিন ওয়ানডের সিরিজ তাদের। আর ২৯ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে আইপিএল। টুর্নামেন্টে বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রায় ১০ জন ক্রিকেটার অংশ নিচ্ছেন। এই ব্যস্ত সূচির মাঝে দক্ষিণ আফ্রিকা আরেকটি সিরিজ যুক্ত করে ক্রিকেটারদের উপর চাপ বাড়াতে চাইছে না।

    দক্ষিণ আফ্রিকা শেষ ২০০৭ সালে পাকিস্তান সফর করেছিল। দুই টেস্ট এবং পাঁচ ওয়ানডের সিরিজ খেলতে সেবার সেখানে গিয়েছিল গ্রায়েম স্মিথের দল। ২০০৯ সালে লাহোরে ক্রিকেটার ও ম্যাচ অফিসিয়ালদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজন থেকে বিচ্ছিন্ন ছিল পাকিস্তান। সম্প্রতি শ্রীলঙ্কার পর তিন দফায় তিন ফরম্যাটে সেখানে সফর করবে বাংলাদেশ। এরই মাঝে দুই দফায় তিনটি টি-টোয়েন্টি ও একটি টেস্ট খেলে এসেছে তারা। 


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন