• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    সালার পাইলটের অনুমতি ছিল না সেই বিমান ওড়ানোর

    বিমান দূর্ঘটনায় নিহত আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড এমিলিয়ানো সালাকে বহনকারী পাইলটের লাইসেন্স ছিল না বলে জানিয়েছে এক তদন্ত প্রতিবেদন।

    সেই ঘটনার বছর পেরিয়ে যাবার পর শুক্রবার নতুন এই তথ্য দিয়েছে দুর্ঘটনার তদন্তে নিয়োজিত এয়ার এক্সিডেন্টস ইনভেস্টিগেশন ব্রাঞ্চ (এআইআইবি)। তদন্তে উঠে এসেছে, বিমানের পাইলট ইবটসনের বিমান ওড়ানোর অনুমতি ছিল না, কারণ তার ট্রেনিং অসম্পূর্ণ ছিল। দুর্ঘটনার সময় পর্যন্ত তার রাতে বিমান ওড়ানোর ট্রেনিং হয়নি। এছাড়া তার প্রাইভেট পাইলট লাইসেন্সের মাধ্যমে কোনোভাবেই অর্থ নিয়ে যাত্রী পরিবহন করারও অনুমতি ছিল না।

    ২০১৯ সালের ২১ জানুয়ারি এক মর্মান্তিক বিমান দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান এমিলিয়ানো সালা। ফরাসি ক্লাব নঁতে থেকে কার্ডিফ সিটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিতে যাওয়ার সময় ইংলিশ চ্যানেলে বিধ্বস্ত করে তাকে বহন করা মালিবু লাইট এয়ারক্রাফট। অনুসন্ধান অভিযানের পর বিমানের ধংসস্তুপ থেকে সালার লাশ পাওয়া গিয়েছিল, তবে বিমানের পাইলট ডেভিড ইবটসনের মরদেহ এখনও পাওয়া যায়নি। 

    নঁতে থেকে উড্ডয়নের আগে মালিবু লাইট এয়ারক্রাফট, যা পরে বিধ্বস্ত হয় ইংলিশ চ্যানেলে/গার্ডিয়ান/এএআইবি/পিএ 


    বিমান ওড়ানোর জন্য পাইলট ইবটসনের লাইসেন্সে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এভিয়েশন সেফটি এজেন্সি (ইএএসএ) কর্তৃক প্রদত্ত ‘প্রয়োজনীয় রেটিং’ও ২০১৮ সালের নভেম্বরেই ফুরিয়ে গিয়েছিল। তাই ঘটনার সময় কার্যত তার বিমান ওড়ানোর অনুমতি ছিল না। এছাড়া তার প্রাইভেট পাইলট’স লাইসেন্সে (পিপিএল) অর্থ নিয়ে যাত্রী পরিবহনের কোনও অনুমতি ছিল না। তবে তদন্তে উঠে এসেছে, সালাকে পরিবহনের জন্য অর্থ পাওয়ার কথা ছিল তার। তাই নির্দিষ্টভাবে কে পাইলটকে এই কাজে নিযুক্ত করেছিল, সেটি এখন খতিয়ে দেখছে এআইআইবি।

    এছাড়াও মালিবু লাইট এয়ারক্রাফট বিমানও নিয়ম অনুযায়ী বাণিজ্যিকভাবে ব্যবহারের অনুমতি নেই। তবুও খেলার দুনিয়ায়, ব্যবসায়িক কাজে এবং অবসর কাটানোর সময় লাইসেন্সবিহীন যাত্রায় নেমে পড়ে এই বিমানগুলো, তদন্তে এই তথ্যও উঠে এসেছে।