• ওয়েস্ট ইন্ডিজের শ্রীলংকা সফর
  • " />

     

    "আন্দ্রে রাসেলই টি-টোয়েন্টিতে আমাদের ক্রিস গেইল, ব্রায়ান লারা"

    ক্রিস গেইল আপাতত দৃশ্যপটে নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের। গত বছরের বিশ্বকাপে খেলেছেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলেছেন গত বছরের আগস্টে। আদতে কবে অবসর নেবেন, তা নিয়ে আছে ধোঁয়াশা। ব্রায়ান লারা তো সেই কবেই অবসর নিয়েছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের সোনালী দিন আদৌ ফিরে আসবে কিনা, বা তেমন কিছুর আভাস পাওয়া যাচ্ছে কিনা, সেসব তর্কসাপেক্ষ। তবে আপাতত আন্দ্রে রাসেলে গেইল-লারাকে খুঁজে পাচ্ছেন তার সতীর্থ অলরাউন্ডার ডোয়াইন ব্রাভো। তিনি বলছেন, “আন্দ্রে রাসেলই টি-টোয়েন্টিতে আমাদের ক্রিস গেইল, আমাদের ব্রায়ান লারা”। 

    “সে বিশ্বের সেরা, ক্রিস গেইল যখন তার সেরা সময়ে ছিল তখন তাকে নিয়েও আমি এমন বলতাম। তাকে আমাদের হয়ে খেলতে দেখে আমরা খুশি ছিলাম, তার বিপক্ষে বোলিং করতে হতো না আন্তর্জাতিক ম্যাচে। আন্দ্রে রাসেলের ক্ষেত্রেও তাই। আন্দ্রে রাসেল এখন আমাদের ক্রিস গেইল, আমাদের ব্রায়ান লারা টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সে সুপারস্টার”, ত্রিনিদাদ-ভিত্তিক এক রেডিওকে দেওয়া সাক্ষাতকারে বলেছেন ব্রাভো। 

    ব্রাভো নিজেও আন্তর্জাতিক অবসর ভেঙে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে ফিরেছেন। শেষ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তাদের মাটির সিরিজেও খেলেছেন, করোনাভাইরাস মহামারির আগে যা ওয়েস্ট ইন্ডিজের শেষ আন্তর্জাতিক সিরিজ। সে সিরিজে সেরা ক্রিকেটার হয়েছিলেন রাসেল। অবশ্য এর আগে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে রাসেল ছিলেন না, তিনি তখন খেলছিলেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে, যেখানে তার দল রাজশাহী রয়্যালস হয়েছিল চ্যাম্পিয়ন। 

    অবশ্য দল হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের পারফরম্যান্স আছে টি-টোয়েন্টিতেও উঠানামার মধ্যে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জেতার পর ভারতের বিপক্ষে একই ব্যবধানে হেরেছিল তারা। এরপর আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ এ ড্র করার পর শ্রীলঙ্কার সঙ্গে অবশ্য জিতেছিল, তবে সে সফরে হেরেছিল ওয়ানডেতে। 

    সাম্প্রতিক পরিস্থিতি বাদ দিলে এ বছর হওয়ার কথা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের, এ ফরম্যাটের বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নও তারা। ব্রাভো বলছেন, তারা ধারাবাহিক নন, “শ্রীলঙ্কায় ৩-০ ব্যবধানে হারের পর আমরা নিজেরা কথা বলেছিলাম টি-টোয়েন্টি সিরিজের আগে। আমরা সংকল্প করেছিলাম, টি-টোয়েন্টি জিতব। টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে দাপুটে দল হিসেবে ফিরতে চেয়েছিলাম আমরা।” 

    “বিশ্বের সেরা কিছু ক্রিকেটার তৈরি করেছি আমরা, এবং একসঙ্গে খেললে আমাদের দাপটটা ধরে রাখতে হবে। ক্রিকেট বিশ্ব ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আবারও সম্মান করবে, বিশেষ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-টোয়েন্টি দলকে। সবাই একত্র হয়ে শ্রীলঙ্কা সিরিজ দিয়েই শুরু করতে চেয়েছিলাম। বার্তা ছিল এমনই।” 

    “এবং হ্যাঁ, আমরা সেটা করেছি।”