• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    "মনে হচ্ছিল কিলিমাঞ্জারো বেয়ে উঠছি", করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ব্রেন্ডন রজার্স

    প্রিমিয়ার লিগের ম্যানেজারদের ভেতর সবার আগে আর্সেনালের মিকেল আর্টেটার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর শোনা গিয়েছিল। তখন চাপা থাকলেও প্রায় দুই মাস পর লেস্টার সিটি ম্যানেজার ব্রেন্ডন রজার্স জানিয়েছেন তিনিও প্রায় একই সময়ে করোনা পজিটিভ হয়ে লড়াই করছিলেন।

    ৪৭ বছর বয়সী সাবেক লিভারপুল ম্যানেজার বিবিসি রেডিওকে জানিয়েছেন শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগেছিলেন তিনি, "আমি হাঁটতেই পারতাম না। হাঁটতে গেলে মনে হত মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো বেয়ে উঠছি।"

    "আক্রান্ত হওয়ার আগের সপ্তাহে আমাদের খেলা ছিল না। এরপর মার্চের ১৪ তারিখ আমাদের ওয়াটফোর্ডের সঙ্গে দেখার কথা ছিল। পরের সপ্তাহ থেকেই আমি ভুগতে শুরু করেছিলাম।"

    "তিন সপ্তাহ ধরে কোনো কোনো স্বাদ-গন্ধ টের পাইনি। আমার গায়ে কোনো শক্তিই ছিল না। পরের সপ্তাহে আমার স্ত্রীও আক্রান্ত হলো। আমাদের দুইজনের শরীরেই ভাইরাস পাওয়া গেল।"

    ২০১১ সালে সোয়ানসি সিটিকে প্রথমবারের মতো প্রিমিয়ার লিগে প্রমোশন এনে দিয়েছিলেন রজার্স। এরপর দাতব্য সংস্থার কাজে মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো আরোহন করেছিলেন তিনি, "পাহাড়ে আপনি যতই ওপরের দিকে যাবেন ততই শ্বাস নিতে কষ্ট হবে। পুরো সময়টা আমার সেই মাউন্ট কিলিমাঞ্জারো আরোহণের কথা মনে পড়েছে।  প্রথমবার (অসুস্থ্য হওয়ার পর) দৌড়াতে গিয়ে ১০ গজও যেতে পারিনি। কিছু খেতেও ইচ্ছা হত না। স্বাদ-গন্ধহীন এক অদ্ভুত সময় পার করেছি তখন।" 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন