• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    'রোনালদোর জুভেন্টাস ছাড়ার খবর মিডিয়ার কৌশল'

    চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে বাদ পড়ার পর থেকে তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে জুভেন্টাসে। রাতে আসরটি থেকে বাদ পড়ার পরদিন সকালেই বরখাস্ত হয়েছেন ম্যানেজার মাউরিজিও সারি। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস ছাড়া নিয়েও গুঞ্জন শুরু হয়ে গেছে। ফ্রান্স ফুটবলে রোনালদো জুভেন্টাস ছেড়ে পিএসজিতে আসার কথা ভেবে দেখছেন বলে খবর বেরিয়েছে।


    তবে জুভেন্টাস প্রধান আন্দ্রিয়া আগনেল্লি খবরটিকে মিডিয়ার কারসাজি বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। সঙ্গে রোনালদো জুভেন্টাসেই থাকবে বলে নিজের আশাবাদও ব্যক্ত করেছেন, “আমি নিশ্চিত সে এখানেই থাকছে। প্রতিবেদনটি কয়েক মাসের আগের এক সাক্ষাৎকার থেকে কিছু কথা তুলে বানানো হয়েছে। আর আমরা একটি ফ্রেঞ্চ টিমের বিপক্ষে খেলতে নামার আগেই খবরটি প্রকাশ করা হয়েছে।”

    “এগুলো মিডিয়ার কৌশল। রোনালদো ক্লাবের স্তম্ভ, সে এখানেই থাকছে।”

    লিগ শিরোপা জুভেন্টাসের জন্য এখন আক্ষরিক অর্থেই দুধ-ভাতে পরিণত হয়েছে। টানা নয়বার এই শিরোপা ঘরে তুলেছে ক্লাবটি। ঘরোয়া ফুটবলে আধিপত্যের পর জুভেন্টাসের লক্ষ্য ইউরোপ জয় করা। কিন্তু সেখানে কোনও মতেই গতি হচ্ছিল না। ১৯৯৫-৯৬ মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের পর ইউরোপ থেকে আর কোনও ট্রফি নিয়ে ঘরে ফিরতে পারেনি ‘তুরিনের বুড়ি’রা।

    তাই চ্যাম্পিয়নস লিগের বরপুত্র রোনালদোকেই মাদ্রিদ থেকে তুরিনে নিয়ে এসেছিল জুভেন্টাস। তবে দুই মৌসুম ধরে রোনালদো যেন ইউরোপে দলকে একাই টানার চেষ্টা করছেন। গত রাতেও লিওঁ-র বিপক্ষে দুই গোল করে ম্যাচ প্রায় হাতের মুঠোয় নিয়ে এসেছিলেন তিনি, কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর টাইয়ে জয় এনে দিতে পারেননি জুভেন্টাসকে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন