• ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    এমবাপের জোড়া গোলের পরও ফ্যাব্রিগাসের মোনাকোর কাছে হেরে গেল পিএসজি

    কিলিয়ান এমবাপে ফিরেছিলেন একাদশে, জোড়া গোলও করলেন। নেইমার একাদশে না থাকলেও ছিলেন বদলি হিসেবে। তবে পিএসজির তাতে লাভ হলো না, দুই গোলে এগিয়ে গিয়েও মোনাকোর কাছে হেরে গেল ৩-২ গোলে। এমবাপেকে ছাড়িয়ে তাই শেষ পর্যন্ত আলো বদলি হিসেবে নামা মোনাকো মিডফিল্ডার সেস ফ্যাব্রিগাস আর কেভিন ভলান্ডের ওপর।


    চোটের জন্য বেশ কজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে হারিয়ে ফেলেছিলেন পিএসজি কোচ টুখেল। কাল অবশ্য এমবাপেসহ আরও কজনকে ফিরে পেয়েছিলেন। ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছিল শুরুতে। ২৫ মিনিটে প্রথমে এমবাপে গোল করে এগিয়ে দেন পিএসজিকে। ১২ মিনিট পর রাফিনহাকে বক্সে ফাউল করা হলে পেনাল্টি পায় পিএসজি। এবার এমবাপে স্পটকিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন, পিএজসি এগিয়ে যাচ্ছিল আরেকটি জয়ের দিকে। পিএসজির হয়ে ৯৯তম গোলও পেয়ে যান এমবাপে। এর মধ্যে অবশ্য দুইবার পিএসজির গোল বাতিল হয়ে যায়। ময়সে কিনের গোল অফসাইডের জন্য ভিএআর নাকচ করে দেয়, আর এমবাপের গোলও টেকেনি একই কারণে।

    কিন্তু প্রথমার্ধ শেষে ফ্যাব্রিগাস নামার পরেই বদলে যায় ম্যাচের চিত্রনাট্য। ৫২ মিনিটে কেভিন ভলান্ড ব্যবধান কমান। ৬৬ মিনিটে ফ্যাব্রিগাসের ক্রস থেকে গোল করে সমতা ফেরান ভলান্ড। তবে নাটক আরও বাকি ছিল। ৮৪ মিনিটে পেনাল্টি পেয়ে যায় মোনাকো, সেটা থেকে গোল করে জয় এনে দেন ফ্যাব্রিগাস।

    এই জয়ের পর ১১ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ ওয়ানের পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে উঠে এলো মোনাকো। ২৪ পয়েন্ট নিয়ে পিএসজি এখন সবার ওপরে আছে, চ্যাম্পিয়নস লিগে এই সপ্তাহের ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ লাইপজিগ।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন