• রিও অলিম্পিক ২০১৬
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    আরও ঘনীভূত লোকটের "ছিনতাই রহস্য"

    গত সপ্তাহেই ১২ বারের অলিম্পিক পদকজয়ী আমেরিকান সাঁতারু রায়ান লোকটের সংবাদ সম্মেলন নাড়িয়ে দিয়েছিল অলিম্পিক ভিলেজকে। বিমর্ষ মুখে লোকটে জানিয়েছিলেন, মার্কিন সাঁতারু দলের ৩ সদস্য ফেইগেন, গানার বেন্টজ এবং জ্যাক কঙ্গারসহ তাঁকে রোববার শেষরাতে পুলিশ পরিচয় দেওয়া এক অস্ত্রধারীর  ছিনতাই করেছে। অলিম্পিকের আগে থেকেই রিওর অপরাধ জগত নিয়ে তেঁতে থাকা বিতর্কটাকেই বরং উসকে দিয়েছিলেন সেই বক্তব্যে। তারপর ভক্ত-সমর্থক থেকে শুরু করে আয়োজক, মার্কিন অলিম্পিক দলের সমর্থনও পেয়েছেন অকুণ্ঠচিত্তে। 


    কিন্তু মাত্র কয়েকদিন পরেই বইতে শুরু করা উল্টো স্রোতের চাপে ছিনতাইয়ের শিকার হওয়া লোকটে নিজেই এখন সমালোচনার আদালতের কাঠগড়ায়। লোকটে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অলিম্পিক কমিটির বক্তব্য অনুযায়ী, গত শনিবার সন্ধ্যায় শেষ হওয়া শহরের দক্ষিণ উপকণ্ঠের রদ্রিগো দে ফ্রেইতাস এলাকায় ফরাসী অলিম্পিক দল আয়োজিত এক পার্টিতে তারা যান। সেখানে কয়েক ঘণ্টা থেকে অলিম্পিক ভিলেজে ফেরার পথে ছিনতাইয়ের শিকার হন। ৩২ বছরের সাঁতারু জানান, সাথে থাকা অর্থ, মানিব্যাগ নিলেও সেলফোন আর পরিচয়পত্র রেখে যায় ছিনতাইকারী। সেই সময় অস্ত্রের মুখে তাঁর সাহসী আচরণ প্রশংসার জন্ম দেয়। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, পুলিশ কিংবা মার্কিন দলের কর্তাদের তৎক্ষণাৎ জানাননি, বিপদের আশংকায়। 


    কিন্তু রিও পুলিশের বক্তব্য অবশ্য একেবারেই উল্টো। ঘটনার সময় মদ্যপ অবস্থায় থাকা মার্কিন সাঁতারুরা জিজ্ঞাসাবাদে তারা কী রকম ও কোন রঙের ট্যাক্সিতে করে ফিরছিলেন কিংবা কোথায় আনুমানিক কখন ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন, কিছুই বলতে পারেননি। এছাড়া পার্টি থেকে বের হওয়ার প্রায় ঘণ্টা তিনেক পর পৌঁছান অলিম্পিক ভিলেজে, যা ধরা পড়েছে সিসিটিভির ফুটেজে। এই সময়টায় তারা কী করেছেন, তার জবাবে সন্তোষজনক কোন উত্তর মেলেনি।
     আরও প্রশ্নের উদ্রেক করেছে, ভিলেজে ঢোকার সময় তাদের হাসিমুখের ছবি। ছিনতাইয়ের শিকার হওয়া কেউ এরকম আচরণ কেন করবে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে পুলিশ। আরও সন্দেহের জন্ম দিয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদে লোকটে এবং ফেইগেনের সাংঘর্ষিক বক্তব্য। লোকটে সংবাদ সম্মেলনে এবং পুলিশের কাছে, একজন ছিনতাইকারীর কথা বললেও ফেইগেন জানিয়েছেন, বেশ কজন ছিনতাইকারী ছিল। এখন পর্যন্ত ট্যাক্সি চালক কিংবা প্রত্যক্ষদর্শী কেউই এগিয়ে আসেনি ঘটনার সুরাহায়। 


    পরবর্তীতে আরও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য করা রিও পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে, বিশেষ ট্রাইব্যুনাল বিচারক কেইলা ব্ল্যাঙ্ক ঘটনার অনুসন্ধানে ফেইগেনের সেলফোন বাজেয়াপ্ত এবং তাদের সাময়িক গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন। মামলা বিচারাধীন থাকা অবস্থায় যাতে তারা দেশত্যাগ করতে না পারেন, তাদের পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করারও নির্দেশ দেন তিনি। পুলিশ অলিম্পিক ভিলেজে পৌঁছানোর আগেই লোকটে ব্রাজিল ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যাওয়ায় এই ছিনতাই রহস্য আরও ঘনীভূত হয়েছে। ফেইগেন সহ বাকিরা রিওতে আছেন কিনা, সেটা নিয়েও আছে ধোঁয়াশা। পরে লোকটের আইনজীবী জেফ অস্ট্রো লোকটে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে গেছেন – এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। কিন্তু  টুরিস্ট পুলিশ, দূতাবাস – সবার সাথে সহায়তা করা সত্ত্বেও গ্রেপ্তার আর পাসপোর্ট বাজেয়াপ্ত করার রায়েও বিরক্তিও আড়াল করেননি। অবশ্য মার্কিন অলিম্পিক দলের মুখপাত্র প্যাট্রিক স্যান্ডাস্কি নিশ্চিত করেছেন, কথিত ছিনতাইয়ের শিকার হওয়া সাঁতারুদের কাছ থেকে আরো তথ্য সংগ্রহ করতে চাইলেও কাউকে আটকের প্রচেষ্টা করেনি রিও পুলিশ। তবে আশ্বাস দিয়েছেন, তারা স্থানীয় পুলিশ এবং বিচার বিভাগের সাথে সব ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন।


     অলিম্পিকের শুরুতেই সবুজ রঙা চুল নিয়ে পুলে নেমে বিতর্কের সূচনা করেছিলেন। রঙের সাথে পানির রাসায়নিক বিক্রিয়া হয়ে দূষণের শিকার হতে পারে পুল, তাই সমালোচিত হয়েছিলেন। পরে ৪x২০০ মিটার ফ্রিস্টাইল রিলেতে স্বর্ণ জেতা ফেল্পসের এই সতীর্থ এখন জন্ম দিয়েছেন আরও বড় বিতর্কের। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন