• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    চ্যাম্পিয়নস লিগে গোলের রাত!

    চ্যাম্পিয়নস লিগে আজ রাতে গোল হয়েছে মোট ২৮ টি। আট খেলার কোনোটিতেই হয়নি ড্র। সবমিলিয়ে ফুটবলপ্রেমিদের জন্য উপভোগ্য এক রাতই ছিল। লিওনেল মেসির মতো হ্যাট্রিক করেছেন মেসুত ওযিলও। সেই সুবাদে আর্সেনাল পেয়েছে বড় জয়। বার্সেলোনা, আর্সেনালের মতো বায়ার্ন মিউনিখও পেয়েছে সহজ জয়। আর চ্যাম্পিয়নস লিগে গতবারের রানারআপ অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ এইবারও জয় পেয়েছে ১-০ গোলেই।

    ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় এর আগে ২০ দেশের ক্লাবের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা থাকলেও বুলগেরিয়ার প্রতিপক্ষ ছিল আর্সেনালের জন্য একেবারেই অচেনা। এই ইতিহাস অবশ্য পাঁচবারের বুলগেরিয়ান লিগ চ্যাম্পিয়ন লুদোগোরেটসকে বড় হার থেকে বাঁচাতে পারেনি। এমিরেটস স্টেডিয়ামে আর্সেনালের কাছে ৬-০ গোলের বড় ব্যবধানে হারতে হয়েছে তাঁদের। ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় আর্সেনালের হয়ে আর্সেন ওয়েঙ্গারের শততম জয়টা এল বিশাল ব্যবধানেই। আর সেই সুযোগে মনে রাখার মতো এক পারফরম্যান্সে অনেকদিনের না পাওয়া এক অতৃপ্তিও ঘোচালেন ওযিল। নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম হ্যাট্রিকটি করেছেন আজই। 



    আর্সেনালের বড় ব্যবধানে জয়ে অবদান সবচেয়ে বেশি মেসুত ওযিলেরই। জার্মান মিডফিল্ডারের ৫৬, ৮৩ ও ৮৭ মিনিটের গোলে লন্ডভন্ড হয়েছে গেছে লুদোগোরেটসের রক্ষণ। মেসুত ওযিল 'শো' শুরু হবার আগেই অবশ্য জয়টা নিশ্চিত করে ফেলেছিল আর্সেনাল। সানচেজ, ওয়ালকট আর চেম্বারলাইনের গোলে ম্যাচের ৪৬ মিনিটের মাঝেই ৩-০ গোলের লিড নিয়েছিল গানাররা। গ্রুপের অন্য ম্যাচে ৩-০ গোলে বাসেলকে হারিয়েছে পিএসজি।

    গ্রুপ 'ডি' তে বায়ার্ন মিউনিখও পেয়েছে বড় জয়। পিএসভি আইন্দোহভেনকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে বায়ার্ন। প্রথমার্ধ অবশ্য শেষ হয়েছিল ২-১ গোলে।  দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচ পুরোপুরি নিজেদের আয়ত্তে নিয়ে আরও দুই গোল করে জার্মানরা। আর তাতে নিশ্চিত হয় বায়ার্নের বড় জয়। এই গ্রুপের আরেক ফেভারিট অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ আগের দুই ম্যাচের মতো এদিনও ১-০ গোলের জয় পেয়েছে। এবার প্রতিপক্ষ ছিল এফসি রোস্তোভ। ৬২ মিনিটে ইয়ানিক কারাস্কো করেন ম্যাচের একমাত্র গোলটি।



    বড় দলগুলোর জয়ের দিন নাপোলি অবশ্য নিজেদেরকে কিছুটা দুর্ভাগা ভাবতে পারে। ইতালিয়ান ক্লাবটি হেরে গেছে বেসিকতাসের কাছে। নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগে ঘরের মাঠে পরাজিত দল হয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে ক্যালিয়ন, পেপে রেয়নাদের। ম্যাচে দু'বার পিছিয়ে পড়েও ৬৯ মিনিটে ম্যাচে ২-২ এ সমতা আনে নাপোলি। এর আগে ২-১ গোলে পিছিয়ে থাকার সময় ৫০ মিনিটে পেনাল্টি পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হন নাপোলির ইনসিংয়ে। পরে সমতা আসলেও হার এড়াতে পারেনি নাপোলি। ৮৬ মিনিটে বেসিকতাসের আবু বকর গোল করে তুরস্কের ক্লাবটির ৩-২ গোলের জয় নিশ্চিত করেন। গত সাত ম্যাচে গোলের দেখা না পাওয়া আবুবকর একাই আজ করেছেন দু'গোল।  গ্রুপের অন্য খেলায় ডিনামো কিয়েভকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বেনফিকা।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন