• ক্রিকেট

"হাস্যকর" সূচিতে বিরক্ত ওয়ার্নার

পোস্টটি ২৬২১ বার পঠিত হয়েছে

সূচিটা প্রকাশের পর থেকেই বিস্মিত হয়েছিলেন সবাই। এই বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ, ঠিক পরের দিনই ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট! ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার এরকম অদ্ভুত সূচির সমালোচনা করেছিলেন সাবেকরা। এবার তাঁদের সাথে যোগ দিলেন অস্ট্রেলিয়ার সহ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। ওয়ার্নারের মতে, এরকম সূচি রীতিমতো হাস্যকর!

 

অপেক্ষাকৃত ‘তরুণ’ অস্ট্রেলিয়া দলের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটারদের একজন ওয়ার্নার। তিন ফরম্যাটের প্রথম একাদশেই নিয়মিত। স্বভাবতই সব ম্যাচেই খেলতে চান এই মারকুটে ওপেনার। কিন্তু পুনেতে প্রথম টেস্ট খেলার জন্য প্রায় দুই সপ্তাহ আগেই দেশ ছাড়তে হবে তাঁদের। দুবাইতে অনুশীলনের পর ভারতে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে হবে অজিদের। ফলে শ্রীলংকার সাথে টি-টোয়েন্টি সিরিজ পুরোটাই মিস করবেন, “খেলার সময়সূচি ঠিক করা বোর্ডের দায়িত্ব। আমার মতে এরকম সূচি খুবই হাস্যকর। একটা সিরিজ চলার সময় মূল দলের বেশিরভাগ ক্রিকেটারকে আরেক সফরে পাঠানোর কোনই মানে হয় না।”

 

সব ট্রফি শোকেসে থাকলেও টি-টোয়েন্টি শিরোপাটাই এখনো অধরা রয়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। আগামী ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতেই। এভাবে মূল দলের ক্রিকেটাররা যদি টি-টোয়েন্টি সিরিজ না খেলতে পারে তাহলে শেষমেশ দেশেরই ক্ষতি হবে মনে মানছেন ওয়ার্নার, “আমাদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে আগাতে হবে। সবসময় নিজেদের সেরা দলটাই নামানো উচিত। যদি আমি, স্মিথ, স্টার্ক, খাজা, শন ভারতে চলে যাই, তাহলে  টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আমাদের অভিজ্ঞতাটা বাড়বে না। আমরা অস্ট্রেলিয়ার মূল দলের অন্যতম প্রধান সদস্য। শুধু বিগ ব্যাশ অথবা আইপিএল দিয়েই সব হয় না। আপনাকে সব ফরম্যাটের জন্য সেরা খেলাটা খেলেই প্রস্তুতি নিতে হয়।”

 

শ্রীলংকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের সময়সূচি ঘোষণার পর অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছিল, ওই সিরিজে একেবারে তরুণ দল নামানো হবে। এবারের বিগ ব্যাশে ভালো করা ক্রিকেটাররাই সুযোগ পাবেন সেখানে। ওই তরুণ দলের কোচ হিসেবে এরই মাঝে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে সাবেক অজি অধিনায়ক রিকি পন্টিং, জেসন গিলেস্পি ও জাস্টিন ল্যাঙ্গারকে। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি মেলবোর্নে প্রথম টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হবে।