• ভারত-বাংলাদেশ সিরিজ
  • " />

     

    "অশ্বিন এখন বোলারদের ব্র্যাডম্যান"

    সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে সবাই একবাক্যেই তাঁর নাম বলবেন। স্যার ডোনাল্ড ব্র্যাডম্যান মানেই তো ব্যাটিংয়ের শেষ কথা। কিন্তু বোলিংয়ে সেই জায়গাটা কার পাওনা? সেটা নিয়ে তর্ক হতে পারে। ওয়ার্ন, মুরালি, মার্শাল, লিলি, ম্যাকগ্রা, আকরামদের মতো কিংবদন্তিদের নাম তো উঠে আসবেই। সেখানে এখন কেউ নিশ্চয় রবিচন্দ্রন অশ্বিনের নাম নেবেন না।  অশ্বিনকে এই মুহূর্তে বোলারদের ব্র্যাডম্যান বলাটাও নিশ্চয় বাড়াবাড়ি হয়ে যাবে। কিন্তু কথাটা যখন স্টিভ ওয়াহর, সেটাকে উড়িয়ে দেওয়ার তো উপায় নেই।

    একের পর এক রেকর্ড ভেঙে ফেলার প্রতিযগিতায় নেমেছেন অশ্বিন। কদিন আগেই বাংলাদেশের সঙ্গে করে ফেলেছেন সব এয়ে কম টেস্টে ২৫০ উইকেটের রেকর্ড। অন্তত ২৫০ উইকেট নেওয়া স্পিনারদের মধ্যে তাঁর স্ট্রাইকরেটই সবচেয়ে কম। দেশের মাটিতে যেভাবে খেলছেন, দ্রুততম ৩০০ উইকেটের রেকর্ডটাও নিজের করেনিতেই পারেন। সামনেই অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে চার টেস্টের সিরিজেই সেই লক্ষ্যে বেশ কিছুটা এগিয়ে যেতে পারেন।

    এখানেই অশ্বিনকে বড় হুমকি মনে করছেন স্টিভ ওয়াহ, “অশ্বিন হচ্ছে বোলারদের ব্র্যাডম্যানের মতো, অন্তত এই মুহূর্তে। ব্র্যাডম্যান ব্যাট হাতে যেমন করেছিলেন, ও তাই করছে। এমনকি ও ভালো ব্যাটও করতে পারে। এই মুহূর্তে সে যেমন খেলছে, তাতে আরও অনেক রেকর্ড ভেঙে দেবে বলে মনে হচ্ছে। আর দেশের মাটিতে ওর রেকর্ড তো স্রেফ দুর্দান্ত। ওই আমাদের সবচেয়ে বড় হুমকি। ওকে ঠিকমতো সামলাতে পারলেই ভারতে আমরা ভালো কিছু করতে পারব।”

    বাংলাদেশের সঙ্গে প্রথম ইনিংসে একটু নিষ্প্রভ ছিলেন অশ্বিন। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে নতুন বল হাতে নিয়ে জ্বলে উঠেছেন। অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গেও অশ্বিনের হাতেই নতুন বল দেখা যেতে পারে বলে মনে করছেন ওয়াহ, “ওয়ার্নার এই মুহূর্তে খুবই ভালো খেলছে। দারুণ ছন্দে আছে। কিন্তু ভারতের সঙ্গে ওকে শুরু থেকেই অশ্বিনকে খেলতে হতে পারে। আমার মনে হয় না, ওরা দুজন পেসারকে নতুন বল দেবে।”

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন