• বাংলাদেশ বনাম শ্রীলংকা
  • " />

     

    'মাশরাফি টি-টোয়েন্টি ছাড়েননি, অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন'

    সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টির টসের সময় অবসরের ঘোষণা দিলেন, সেটা টিভি পর্দায় সরাসরি সম্প্রচার হল। নিজের ফেসবুক পাতায় লিখেছেন বিস্তারিত, দ্বিতীয় ম্যাচের আগে সতীর্থরাও প্রিয় অধিনায়ককে উদ্দেশ্য করে আবেগঘন বিদায়বার্তা লিখেছেন। বাংলাদেশের সিংহভাগ মানুষের ফেসবুক নিউজফিড জুড়ে গত তিনদিন ধরে কেবলই মাশরাফি বিন মর্তুজার অবসর। অথচ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান বলছেন, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট নয়, কেবল অধিনায়কত্বটাই ছেড়েছেন মাশরাফি!

     

    মি. হাসানের ভাষ্য অনুসারে বোর্ড ছাড়পত্র না দেয়া পর্যন্ত মাশরাফির অবসরের ঘোষণা ‘কার্যকর’ হচ্ছে না, “একটা কথা বারবার বলছি, মাশরাফি কিন্তু টি-টোয়েন্টি ছাড়েনি। আমরা এখনও পর্যন্ত বলিনি মাশরাফি স্কোয়াডে নেই। ও ‍অধিনায়কত্ব ছেড়েছে। ও নিজেকে ফিট মনে করলে অবশ্যই খেলবে। যদি খেলতে না চায় কিন্তু আমাদের দরকার হয় তাহলে কি আমরা তাঁকে ছেড়ে দিব?”

     

    তবে অধিনায়কত্ব ছাড়ার জন্য যে মাশরাফির ওপর চাপ ছিল সেটা পরোক্ষভাবে স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি, “তিন ফরম্যাটে আমাদের তিনজন অধিনায়ক হবে সেটা আমি প্রথম থেকেই বলে আসছি। এখানে শুধু অধিনায়কত্ব ভাগ হয়েছে। মুশফিক তিনটাতেই অধিনায়ক ছিল আগে। এখন দুটির অধিনায়কত্ব চলে গেছে বলে কি সে বিদায় নিয়েছে?”

     

    মাশরাফির অবসর নিয়ে দেশব্যাপী এমন হাহাকারেরও কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না বিসিবি সভাপতি, “টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্বে কে এল, কে গেল সেটা নিয়ে বিশ্বের আর কোথাও এত খবর হতে দেখি নি। বাংলাদেশেই দেখলাম এটা নিয়ে এত হুলুস্থুল। অন্য দেশে টেস্ট নিয়ে কথা হয়, ওয়ানডে নিয়ে হয়, কিন্তু টি-টোয়েন্টি নিয়ে এমন আলোচনা হয় না।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন