• শ্রীলঙ্কা-জিম্বাবুয়ে
  • " />

     

    'সাঙ্গা, জয়া বা আমি এলেও কোনো লাভ হবে না'

    জিম্বাবুয়ের কাছে অপ্রত্যাশিতভাবে ওয়ানডে সিরিজ পরাজয়, অধিনায়ক ম্যাথিউসের পদত্যাগ; সবকিছু মিলিয়ে শ্রীলংকা ক্রিকেটের সময়টা ভালো যাচ্ছে না। অনেকেই বলছেন, দলের এই ক্রান্তিকালে সাবেক ক্রিকেটারদের সাহায্য নেওয়া উচিত। তবে মুরালিধরন মনে করেন, সাঙ্গাকারা, জয়াবর্ধনে কিংবা তিনি এলেও দলের কোনো লাভ হবে না।

    মুরালি বলছেন, যা করার শ্রীলংকা দলের ক্রিকেটারদেরই করতে হবে, “আমার অবসরের পর থেকে লংকান ক্রিকেটের সাথে যুক্ত নেই। ৫-৬ বছর হয়ে গেছে। আমি জানি না এখানে হচ্ছেটা কী! বিস্তারিত না জেনে আসলে আমার মন্তব্য করা উচিত হবে না। তবে সমস্যা যে আছে সেটা বুঝতে পারছি। দলের পারফরম্যান্স নিম্নমুখী হয়েছে, এখান থেকে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। সাঙ্গাকারা, জয়াবর্ধনে কিংবা আমি এটাকে বদলাতে পারব না। সাঙ্গা এখনো ক্রিকেট খেলছে, মাহেলাও আমার মতো কোচিং নিয়ে ব্যস্ত। তাই তাঁদের থেকে কিছু আশা না করে লংকান দলের সদস্যদের নিজেদেরই এগিয়ে আসতে হবে।”

    সামনেই ভারতের বিপক্ষে সিরিজ। মুরালি মানছেন, এই সিরিজে ভারতই ফেভারিট, “অবশ্যই ভারত ফেভারিট। শ্রীলংকার পিচ কেমন হবে জানি না, তবে ভারত এখানে এসে ব্যাটিং সহায়ক উইকেটই পাবে। অশ্বিন ও জাদেজা এখানে খুব ভালো করবে আমার ধারণা। শ্রীলংকা এখন ভালো খেলছে না, এটার সুযোগ তারা দুজনই নেবেন। অশ্বিন তাঁর ক্যারিয়ারের সেরা ফর্মে আছেন।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন