• পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ
  • " />

     

    পিসিবির বিদায়ী সংবর্ধনায় যাবেন না ইউনিস

    অবসরের প্রায় চার মাস হয়েছে। ইউনিস খানের সাথে বিদায়ী টেস্ট খেলে সেবার ক্রিকেটকে বিদায় বলেছিলেন মিসবাহ-উল-হকও। তাদের আগে খেলা ছেড়েছেন আফ্রিদিও। এই তিন সাবেক পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের সম্মানে বিদায়ী সংবর্ধনার আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু ইউনিস বলছেন, তিনি এই অনুষ্ঠানে যাবেন না।

    বোর্ডের সাথে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের মনোমালিন্যের ঘটনা নতুন নয়। আফ্রিদিকে বিদায়ী ম্যাচ খেলার সুযোগ দেওয়ার কথা বলেও সেটা করা হয়নি। ইউনিস-মিসবাহ অবশ্য মাঠ থেকেই বিদায় জানাতে পেরেছেন। অবসরের এতদিন পর এই ‘লোক দেখানো’ সংবর্ধনার কোনো মূল্য নেই বলেই মনে করেন ইউনিস, “এখন এই বিদায় সংবর্ধনার কোনো মানে হয় না। আমি আর মিসবাহ মে মাসেই অবসর নিয়েছি। অন্য দেশে অবসর নেওয়ার কয়েকদিনের মাঝেই তাদের বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়। আমি অর্থলোভী না। পিসিবি থেকে আমাকে বলা হয়েছে, ওই অনুষ্ঠানে নাকি আমাদের অনেক টাকা দেওয়া হবে। কিন্তু আমার ওই টাকার দরকার নেই।

     

     

    ইউনিস জানালেন, চুক্তি শেষ হওয়ার আগেই অবসর নেওয়ার তার ক্যারিয়ারের শেষ ৪৫ দিনের বেতন দেয়নি পিসিবি, “আমার কাছে আত্মসম্মানটাই সবকিছু। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড বেশিরভাগ ক্রিকেটারদের সাথে কখনোই সম্মান দেখায়নি, যে সম্মান তাদের প্রাপ্য ছিল। খেলোয়াড় হিসেবে পিসিবির যে কাজকর্ম দেখেছি, সেটা ভুলতে পারবো না।”

    ইউনিস সংবর্ধনায় অংশ নিতে না চাইলেও এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি পিসিবি। মিসবাহ ও আফ্রিদির পক্ষ থেকেও কোনো সিদ্ধান্ত জানা যায়নি।

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন