• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    কিক অফের আগেঃ রোনালদোদের প্রতিপক্ষ কেইনের টটেনহাম

    বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের নাটকীয়তার পর আজ আবারও মাঠে ফিরছে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ। টানা দুই জয়ের পর ‘এইচ’ গ্রুপের শীর্ষস্থানের লড়াইয়ে মাঠে নামছে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর রিয়াল মাদ্রিদ এবং হ্যারি কেইনের টটেনহাম হটস্পার্স। ‘এফ’ গ্রুপেও শীর্ষস্থানের জন্যই লড়বে পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটি এবং মরিসিও সারির নাপোলি।

     

    কেনকে সমীহ করছেন জিদানঃ

    চলতি বছরটা দারুণ কাটছে তার। দলগত সাফল্য না পেলেও ব্যক্তিগত অর্জনের তালিকাটা বেড়েই চলেছে ক্রমান্বয়ে। লিওনেল মেসি, রোনালদোদের টেক্কা দিয়ে গোল করে নিজের সামর্থ্যের জানান দিচ্ছেন প্রতিনিয়ত। সেজন্যই স্পার্সের ‘প্রাণভোমরা’ কেইনকে যথার্থ এবং প্রাপ্য সম্মানটাই দিচ্ছেন রিয়ালের কোচ জিনেদিন জিদান। ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, “সময়টা দারুণ যাচ্ছে তার। গোল করা, করানো- দুই ক্ষেত্রেই সমান পারদর্শী সে। আমার কাছে সে একজন পূর্নাঙ্গ খেলোয়াড়”। কেইনের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের কারণে আগামী গ্রীষ্মকালীন দলবদলে তাকে দলে ভেড়ানোর কথা ভাবছে রিয়াল- এমন গুঞ্জন ডালপালা ছড়াচ্ছে বেশকিছু দিন ধরে। সাংবাদিকদের এমন প্রশ্ন অবশ্য  কৌশলে এড়িয়ে গেছেন জিদান।

    অন্যদিকে জিদানের মত প্রতিপক্ষ রিয়ালকেও সম্মান দিয়েই কথা বলেছেন স্পার্স কোচ মরিসিও পচেত্তিনো। বলেছেন, “শেষ চার বছরে তারা তিনবার এই শিরোপাটি জিতেছে। আর এখন দলটা কেবল রোনালদোর ওপর নির্ভর করে না। এই ম্যাচটি দিয়ে আমরা প্রমাণ করতে চাই যে আমরা শীর্ষস্থানীয় দলগুলোকেও টেক্কা দিতে পারি”। কেইনের ভবিষ্যৎ সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে পচেত্তিনো বলেন, “রোমায় ফ্রান্সেস্কো টট্টির বিদায়ী সংবর্ধনা দেখে সে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিল। ঐ ঘটনাটি তার জন্য এক অনুপ্রেরণাই হয়ে দাঁড়িয়েছে”।


    ইঞ্জুরির কারণে প্রাক্তন ক্লাবের বিপক্ষের ম্যাচটি মিস করবেন গ্যারেথ বেল। একই কারণে মাতেও কোভাচিচ এবং দানি কারভাহালকেও পাচ্ছে না রিয়াল। ওদিকে বহিষ্কারাদেশের কারণে স্পার্সের হয়ে ম্যাচটি মিস করবেন ড্যালে আলি। নিজেদের মধ্যকার শেষ চার ম্যাচের তিনটিতেই জয় পেয়েছে রিয়াল, অন্যটি হয়েছে ড্র। ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ১২:৪৫ মিনিটে সরাসরি সম্প্রচার করবে টেন ২।

    গ্রুপের অন্য ম্যাচে সাইপ্রাসের চ্যাম্পিয়ন অ্যাপোয়েল নিকোসিয়ার সম্মুখীন হবে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

     

    সিটিকে থামাতে পারবে নাপোলি?

    ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের নতুন মৌসুমে তাদের যেন অপ্রতিরোধ্য। একের পর এক বিধ্বংসী জয়ে এগিয়ে যাচ্ছে আরো একটি লিগ শিরোপার পথে। গার্দিওলার সিটির আজকের প্রতিপক্ষ অবশ্য যেনতেন কেউ নয়। গত ছয় মৌসুমের ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাসকে হটিয়ে ‘সিরি আ’-র শীর্ষ দল এখন নাপোলিই। ইতালি এবং ইংল্যান্ডের শীর্ষস্থানীয় দু’দলের মধ্যে জম্পেশ এক লড়াইয়ের অপেক্ষায় আছে ফুটবলবিশ্ব।

    আজকের ম্যাচ দিয়েই সিটির মূল একাদশে ফিরতে পারেন সার্জিও আগুয়েরো। গত মাসে নেদারল্যান্ডে এক ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় পাঁজরের হাড় ভেঙ্গে গিয়েছিল তার। কিন্তু বিস্ময়করভাবে মাত্র সপ্তাহ দুয়েক পরই পূর্ণাঙ্গ ট্রেনিং-এ ফেরত এসেছেন এই তারকা স্ট্রাইকার। দু’দলের সর্বশেষ দেখা হয়েছিল ১১-১২ ইউসিএল মৌসুমে। সেবার সিটির মাঠে ১-১ গোলে ড্র করলেও নিজেদের মাঠে ‘সিটিজেন’দের ২-১ গোলে হারিয়েছিল নাপোলি। নিজেদের চ্যাম্পিয়নস লিগ ইতিহাসে কখনো ইংল্যান্ডের মাটিতে জিততে পারেনি  তারা। ওদিকে ইতিহাদে শেষ ১০ ইউসিএল ম্যাচে অপরাজিত আছে গার্দিওলার দল।  রাত পৌনে একটায় ম্যাচটি দেখা যাবে টেন ৩-তে। গ্রুপের অন্য ম্যাচে ফেইনুর্দের মুখোমুখি হবে শাখতার দনেৎস্ক।

     

    সিটি, রিয়ালের মতই ‘ডি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই জয় পেয়েছে বার্সেলোনাও। আগামীকাল ন্যু ক্যাম্পে কাতালানদের প্রতিপক্ষ অলিম্পিয়াকোস। অন্য ম্যাচে জুভেন্টাসের প্রতিপক্ষ স্পোর্টিং লিসবন।

    ‘বি’ গ্রুপে গত ম্যাচে বায়ার্ন মিউনিখকে রীতিমত উড়িয়ে দিয়েছিল পিএসজি। আগামীকাল বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে আন্ডারলেখটের মুখোমুখি হবেন নেইমার-এম্বাপ্পেরা। বায়ার্নে প্রত্যাবর্তনের পর নিজের প্রথম হোম ইউসিএল ম্যাচে ইয়ুপ হেইঙ্কেসের প্রতিপক্ষ সেল্টিক।

    ‘সি’ গ্রুপে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের নতুন মাঠ ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানোতে আক্ষরিক অর্থেই ম্যাচের শেষ আক্রমণে জয় ছিনিয়ে এনেছিল চেলসি। গ্রুপের শীর্ষস্থান ধরে রাখতে আজ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে রোমার মুখোমুখি হবে আন্তোনিও কন্তের দল। ওদিকে অ্যাটলেটিকোর প্রতিপক্ষ ‘পুঁচকে’ কারাবাগ।

    ‘এ’ গ্রুপে শতভাগ জয়ের রেকর্ড অক্ষুণ্ণ রাখতে বেনফিকার মাঠ স্তাদিও দা লুজে নামবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ‘এফ’ গ্রুপে মারিবোরের মুখোমুখি হবে দুই ম্যাচের কোনোটিতেই জয়ের মুখ দেখতে না পাওয়া লিভারপুল। ‘জি’ গ্রুপে পোর্তোর প্রতিপক্ষ নবাগত আরবি লাইপজিক। একই গ্রুপে মোনাকোর মাঠে খেলবে বেসিকতাস।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন