• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    সিটির রেকর্ডের দিনে জিতল লিভারপুল, আর্সেনালও

    প্রিমিয়ার লিগে ম্যানচেস্টার সিটির জয়রথ ছুটছেই। আজ ওয়েস্টব্রমকে ৩-২ গোলে হারিয়ে নতুন একটা রেকর্ডও গড়েছে পেপ গার্দিওলার দল। প্রিমিয়ার লিগের দশ ম্যাচের হিসেবে সিটির চেয়ে ভালো শুরু করতে পারেনি কোনো দল। ৯ জয় ও ১ ড্রয়ে ২৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে সিটি। দুইয়ে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড পিছিয়ে আছে ৫ পয়েন্টে।

    অন্য ম্যাচে আর্সেনালের হয়ে আর্সেন ওয়েঙ্গারের ৮০০ তম ম্যাচে ‘গুরুকে’ জয় উপহার দিয়েছে আর্সেনাল। অ্যানফিল্ডে সহজ পেয়েছে লিভারপুলও।



    ওয়েস্টব্রমের বিপক্ষে স্কোরলাইনটা অবশ্য ম্যাচে সিটির আধিপত্যের কথা বলছে না। সার্জিও আগুয়েরো না থাকলেও ১০ মিনিটেই গোল করে ম্যাচে সিটিকে নিয়ন্ত্রণে এনে দেন লিরয় সানে। এর আড়াই মিনিট পর অবশ্য ওয়েস্টব্রমের জেয় রদ্রিগেজ এক গোল শোধ দেন। কিন্তু দুই মিনিট পরই ফার্নান্দিনহোর গোলে লিড ফিরে পায় সিটি। প্রথমার্ধে আর গোলের দেখা না পেলেও ৬৪ মিনিটে ব্যবধান আরও  বাড়িয়ে নেন রাহিম স্টার্লিং। কাইল ওয়াকারের ক্রস থেকে পা ছুঁয়ে ওয়েস্টব্রমের জালে বল জড়ান ইংলিশ ফরোয়ার্ড। শেষদিকে ফিলিপস এক গোল শোধ দিয়েছিলেন ঠিকই, কিন্তু ম্যান সিটির জয়ে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারেননি।

    এমিরেটসে আর্সেনালের জয়টা অবশ্য সহজ ছিল না। প্রথমার্ধ পর্যন্ত ঘরের মাঠে পিছিয়েই ছিল গানাররা। ৫১ মিনিটে সিড কোলাসিনাচ গোল করে আর্সেনালকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন। এর ৭ মিনিট পরই অ্যারন রামসে গোল করে প্রথমবারের মতো আর্সেনালকে এগিয়ে দেন ম্যাচে। পরে ওই গোলেই নিশ্চিত হয় খেলার ভাগ্য।



    আর্সেনালের মতো প্রথমার্ধে গোল করতে পারেনি লিভারপুলও। গোলের জন্য ম্যাচের ৫০ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দলকে। ৪২ মিনিটে অবশ্য মোহাম্মাদ সালাহ পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ না হলে আরও আগেই এগিয়ে যেতে পারত কপরা।

    আগের ম্যাচে ম্যান ইউনাইটেডকে হারানো হাডার্সফিল্ডের বিপক্ষে প্রথম গোলটা করেন ড্যানিয়েল স্টারিজ। এর পরই ম্যাচে ফিরে আসে লিভারপুল। একের পর এক আক্রমণ করে বড় জয়েরই ইঙ্গিত দিচ্ছিল। ৫৮ মিনিটে জেমস মিলনারের কর্নার থেকে হেড করে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রবার্তো ফিরমিনো। শেষ গোলটা করেছনে ওয়াইনাল্ডাম। সালাহ, মাটিপরা সহজ সুযোগ নষ্ট না করলে লিভারপুল জিততে পারত আরও বড় ব্যবধানেই।
      

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন