• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    সালাহর জোড়া গোলে জিতল লিভারপুল

    ওয়েস্ট হ্যামের মাঠ লন্ডন স্টেডিয়াম থেকে সহজ জয় নিয়েই ফিরেছে লিভারপুল। টটেনহাম হটস্পার্সের কাছে ওয়েম্বলিতে ৪-১ গোলে ধরাশায়ী হওয়ার পর টানা দুই জয় দিয়ে টেবিলের ছয় নম্বরে উঠে এসেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। মোহাম্মদ সালাহর জোড়া গোলে ওয়েস্টহ্যামকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে 'অল রেড'রা।

     

     

     

    প্রথমার্ধে লিভারপুল দুই গোলে এগিয়ে গেলেও প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল ওয়েস্টহ্যামই। ১০ মিনিটের দিকে আন্দ্রে আইয়ুর শট বারে প্রতিহত না হলে লিডটা নিতে পারতো স্লাভেন বিলিচের দলই। ২১ মিনিটে দুর্দান্ত এক প্রতি আক্রমণে ক্লপের দলকে এগিয়ে নেন সালাহ। সাদিও মানের নিখুঁত পাস থেকে গোলরক্ষক জো হার্টকে একা পেয়ে ভুল করেননি মিশরীয় উইঙ্গার। এর মিনিট তিনেক পর ব্যবধান দ্বিগুণ করে লিভারপুল। ২৪ মিনিটে সালাহর নেওয়া কর্ণার ক্লিয়ার করতে যেয়ে ভুল করে নিজেদের জালেই শট নেন মার্ক নোবেল। ওয়েস্ট হ্যাম অধিনায়কের শট দারুণভাবে রুখে দিলেও জোয়েল মাতিপের ফিরতি প্রচেষ্টা আর ফেরাতে পারেননি হার্ট। ২-০ লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে লিভারপুল।

     

     

    নিষ্প্রভ এক প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে শুরুটা ভালোই করেছিল ওয়েস্টহ্যাম। ফলাফলটাও আসে হাতেনাতে। ৫৬ মিনিটে আর্জেন্টাইন মানুয়েল লানজিনির গোলে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় 'হ্যামার'রা। অবশ্য ম্যাচে ফেরার সেই আশ্বাসটা আক্ষরিক অর্থেই এক মিনিটও স্থায়ী হয়নি লন্ডনের ক্লাবটির। ঠিক ৫৭ সেকেন্ড পর লিভারপুলের জার্সি গায়ে অ্যালেক্স-অক্সলেড চেম্বারলেইনের প্রথম গোলে আবারও দুই গোলের ব্যবধান পুনরুদ্ধার করে লিভারপুল। পিছিয়ে থাকা ম্যাচে গোলের আশায় সাবেক 'অল রেড' স্ট্রাইকার অ্যান্ডি ক্যারোলকে নামিয়েও লাভ হয়নি বিলিচের। উল্টো ৭৬ মিনিটে ওয়েস্টহ্যামের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন সালাহই। আবারও মানের পাস থেকেই ম্যাচে লিভারপুলের চার নম্বর গোল করেন তিনি। মৌসুমে এটি ছিল সালাহর দ্বাদশ গোল। ইংল্যান্ডের শীর্ষ পাঁচ লিগে তার চেয়ে বেশি গোল কেবল হ্যারি কেইনের (১৪)।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন