• ভারত -শ্রীলংকা সিরিজ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    'আমি রোবট না'

    তিন ফরম্যাটেই দলের অধিনায়ক তিনি, দলের প্রাণভোমরাও বটে। গত কয়েক বছরে কালেভদ্রেই ‘বিশ্রাম’ নেওয়ার সুযোগ হয়েছে। বিরাট কোহলি বলছেন, তিনি ‘রোবট’ নন, তাঁরও বিশ্রামের প্রয়োজন আছে।

     

     

     

    বছরজুড়েই ভারতের ব্যস্ত ক্রিকেটসূচি। দলের অনেকেই মাঝে সাঝে ‘বিশ্রাম’ পান। শ্রীলংকার বিপক্ষে  সিরিজে নিজে থেকেই বিশ্রাম চেয়ে নিয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া। অশ্বিন-জাদেজাও ওয়ানডেতে বিশ্রাম শেষে টেস্ট খেলতে নামবেন। কোহলি জানালেন, প্রয়োজন হলে তিনিও বিশ্রাম চাইবেন, “আমারও বিশ্রাম দরকার। এটা কার না দরকার হয়। আমি তো আর রোবট না! আমার চামড়া কেটে দেখতে পারেন, রক্ত বইছে সেখানে। যখন আমার মনে হবে যে শরীরের কিছুটা বিশ্রাম দরকার তখন নিজেই চেয়ে নেবো।”

     

    প্রয়োজন হলেই কেবল ক্রিকেটারদের বিশ্রাম নেওয়া উচিত, বলছেন কোহলি, “সবাই বছরে ৪০ টির মতো ম্যাচ খেলে। দলে ১১ জন ক্রিকেটার থাকে। কিন্তু সবাই তো ৪৫ ওভার ব্যাট করে না, কিংবা টেস্টে ৩০ ওভার বল করে না। যারা অনেক বেশি এরকম করেন ম্যাচের সময় তাঁদেরই শুধু সমস্যা হবে। বাইরের অনেকেই এই ব্যাপারটা বুঝতে চেষ্টা করে না। বিশ্রাম দরকার কি দরকার না এটা নিয়ে শুধু কথাই বলেন, ভেতরের ব্যাপারগুলো হিসাব করেন না।”

     

    ম্যাচের ধকল কাটিয়ে ওঠার জন্যই বিশ্রামটা দরকার বলে জানালেন ভারতীয় অধিনায়ক, “খেলায় ভালো করতে হলে একটা ভারসাম্য দরকার। তিন ফরম্যাটে অতিরিক্ত ক্রিকেট খেললে নিজের পারফরম্যান্স ধরে রাখা অসম্ভব। ধকল কাটিয়ে ওঠার জন্য মাঝে মাঝে বিশ্রাম দরকার।”

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন