• লা লিগা
  • " />

     

    আমরণ গ্রিজমানের পাশে থাকবেন সিমিওনে

    গত বছর তিনেক ধরে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের আক্রমণভাগের অন্যতম মূল অস্ত্র তিনি। কিন্তু নতুন মৌসুমে যেন নিজেকে খুঁজছেন আঁতোইন গ্রিজমান। ক্লাবের হয়ে গত সাত ম্যাচে গোল পাননি। গতকাল নগরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষেও ছিলেন নিষ্প্রভ। এ কারণেই ম্যাচ শেষে নিজ সমর্থকদের দুয়োর মাঝেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাঁকে। নিজের এই দুঃসময়ে অবশ্য সিমিওনেকে ঠিকই পাচ্ছেন গ্রিজমান। গতকাল ম্যাচ শেষে সিমিওনে বলেছেন, গ্রিজমানকে অ্যাটলেটিকোতে থাকাকালীন পূর্ণ সমর্থনই দিয়ে যাবেন তিনি।

     

     

    অ্যাটলেটিকোর নতুন মাঠ ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানোর প্রথম ‘মাদ্রিদ ডার্বি’-তে মূল জয়ী আসলে বার্সেলোনা। দুই শিরোপা প্রতিদ্বন্দ্বী ড্র করায় মাত্র ১২ শেষেই রিয়াল এবং অ্যাটলেটিকোর চেয়ে ১০ পয়েন্টে এগিয়ে গেল কাতালানরা।

     

    ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে গ্রিজমানের উদ্দেশ্যে সমর্থকদের দুয়োর বিষয়টি উঠতেই সাংবাদিকদের থামিয়ে দেন সিমিওনে, “আমি তাদের (অ্যাটলেটিকো সমর্থক) সাথে একমত নই। আঁতোইনের উদ্দেশ্যে তাঁদের এই আচরণ আমাকে প্রভাবিত করবে না”। গ্রিজমানকে নিজের ‘পরিবারের অংশ’ হিসেবেই মনে করেন সিমিওনে, “ছেলেবেলা থেকেই আমাকে শেখানো হয়েছে, একবার পরিবারের অংশ মানে সারাজীবন একসাথে থাকা । এখন আর এই দর্শন বদলাবো না আমি। পরিবারের সমস্যাদি পরিবারের মাঝেই নিষ্পত্তি হওয়া উচিত। দলের জন্য যেটা ভাল, আমি সবসময় সেটাই করবো; তা গ্রিজমান বা যুবদলের কোনো খেলোয়াড়ই হোক না কেন”।

    গতকাল রিয়ালের বিপক্ষে ড্র করলেও দলের সার্বিক পারফরম্যান্সে বেশ সন্তুষ্টই ছিলেন সিমিওনে, “প্রথম ২৫-৩০ মিনিট আমরাই ভাল খেলেছি। তাঁরা (রিয়াল) বিশ্বের সেরা ক্লাব। প্রথমার্ধের বাকি সময়টুকু খেলা তাদের নিয়ন্ত্রণে ছিল। আর দ্বিতীয়ার্ধ ছিল ‘মাদ্রিদ ডার্বি’র আসল রূপ। যে কেউই জয় পেতে পারত। দলগত ভাবে আমরা আমরা ভালই করেছি। তিন মিনিটেই আনহেল কোরেয়া গোলটি করতে পারলে ম্যাচের ফলাফলটা অন্যরকমও হতে পারত”।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন