• ভারত -শ্রীলংকা সিরিজ
  • " />

     

    'ব্রেইন-ফেড' হয়নি পেরেরার

    চতুর্থ দিনের ৫৭ তম ওভারে বোলিংয়ে এলেন ভারতের মোহাম্মদ শামি। ইনসুইংয়ার সামলাতে পারলেন না স্ট্রাইকে থাকা দিলরুয়ান পেরেরা, বল লাগল প্যাডে। আম্পায়ার নাইজেল লং নির্দ্বিধায় আঙ্গুল তুললেন। রিভিউ নেবেন কী নেবেন না, কয়েক সেকেন্ড ভেবেই প্যাভিলিয়নের দিকে হাঁটা ধরলে পেরেরা। তবে হুট করেই পেছন ফিরে তাকিয়ে রিভিউ নিলেন, আম্পায়ারের সিদ্ধান্তও বদল হলো রিভিউয়ের পর। ধারাভাষ্যকারসহ অনেকেই বলেছিলেন, ড্রেসিংরুমের ইশারাতেই হয়ত রিভিউ নিয়েছিলেন পেরেরা। তবে শ্রীলংকা টিম ম্যানেজমেন্ট বলছে, ড্রেসিংরুম থেকে কোনো ইশারা পাননি তিনি।

     

     

     

    আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, আউট হওয়া ব্যাটসম্যান শুধুমাত্র ওপর প্রান্তে থাকা ব্যাটসম্যানের সাথে পরামর্শ করতে পারবেন রিভিউ নেওয়ার ব্যাপারে। কোনোভাবেই ড্রেসিংরুমের সাহায্য নেওয়া যাবে না এই ব্যাপারে। পেরেরা ড্রেসিংরুমের ইশারাতে রিভিউ নিয়েছেন, এরকম অভিযোগ নাকচ করেছে শ্রীলংকা দল, “পেরেরার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হচ্ছে সেটা ভিত্তিহীন। আউট হওয়ার পর ড্রেসিংরুম থেকে তাকে কোনো ইশারা করা হয়নি। সে ভেবেছিল শ্রীলংকার কোনো রিভিউ বাকি নেই। হেরাথ আম্পায়ারকে জিজ্ঞাসা করে রিভিউ বাকি আছে কিনা। এটা জানার পরেই পেরেরা ফিরে গিয়ে রিভিউ চেয়েছিল।”

     

    পেরেরার সাথে ক্রিজে থাকা রঙ্গনা হেরাথ বলছেন, পেরেরা নিজেই রিভিউ নিয়েছেন, “আমি আম্পায়ারের সাথে রিভিউ নিয়ে কথা বলছিলাম। আমার কথা শুনেই হয়ত পেরেরা ফিরে এসেছে। তাকে আমি ডাক দেইনি, শুধু আম্পায়ারকে রিভিউয়ের কথা বলেছি।”

     

    ভারত-অস্ট্রেলিয়া সিরিজে অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের ‘ব্রেইন ফেডের’ সেই মুহূর্ত নিয়ে কম কথা হয়নি। আউট হওয়ার পর ড্রেসিংরুমের দিকে তাকিয়ে রিভিউ নেওয়ার ব্যাপারে সাহায্য চেয়েছিলেন স্মিথ। আম্পায়ার সাথে সাথেই তাকে বাধা দেন, পরে নিজের এই আচরণের জন্য দুঃখও প্রকাশ করেছিলেন। এ নিয়ে বিরাট কোহলির সাথে ছোটখাটো একটা ‘তর্কযুদ্ধ’ হয়েছিল স্মিথের।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন