• ফুটবল

কিক অফের আগেঃ মরিনহোকে আশা দেখাচ্ছে ওল্ড ট্রাফোর্ড

মরিনহোকে আশা দেখাচ্ছে ওল্ড ট্রাফোর্ড

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড বনাম সেভিয়া; প্রথম লেগ স্কোরঃ ০-০; ওল্ড ট্রাফোর্ড,  ১৩(১৪) মার্চ, ২০১৮; রাত ১:৪৫; টেন ২

 

স্প্যানিশ গোলরক্ষক ডেভিড ডি গেয়ার দুর্দান্ত পারফরম্যান্সেই প্রথম লেগে স্পেন থেকে গোলশূন্য ড্র নিয়ে ফিরতে পেরেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের মাঠে কোচ হোসে মরিনহোর অধীনে রীতিমত অদম্য ইউনাইটেড। শেষ ২০ 'হোম' ম্যাচে মাত্র একবার হেরেছে তারা, পেপ গার্দিওলার ম্যানচেস্টার সিটির কাছে। গত সপ্তাহেই লিভারপুলকে এই ওল্ড ট্রাফোর্ডেই হারিয়েছে 'রেড ডেভিল'রা। তবে প্রিমিয়ার লিগের ফর্ম চ্যাম্পিয়নস লিগে কাজে দেবে না বলেই মনে করেন মরিনহো, "লিভারপুলের বিপক্ষের ম্যাচটি এখন ইতিহাস। প্রিমিয়ার লিগে এক ম্যাচ হারলেও পরের ম্যাচে শাপমোচনের সুযোগ থাকে। কিন্তু আজ সেভিয়ার বিপক্ষে এমন কোনো সুযোগ থাকছে না আমাদের। চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলতে উঠতে পারাটা যেকোনো দলের জন্য দারুণ কিছু। আমার মনে হয় না এই প্রতিযোগিতার সেরা দল ইউনাইটেড। সেভিয়ার বিপক্ষে তাই জিততে আমাদের সর্বোচ্চটাই দিতে হবে"।

 

 

লিভারপুলের বিপক্ষে জোড়া গোল করে ইউনাইটেডকে জিতিয়েছিলেন মার্কোস র‍্যাশফোর্ড। মরিনহোর অধীনে দলে এর আগে খুব একটা সুযোগ না মিললেও ওই ম্যাচেই নিজের দাবির কথার জানিয়ে রেখেছেন তিনি। সেভিয়ার বিপক্ষে মহা গুরুত্বপুর্ণ ম্যাচে তাই আক্রমণভাগে ইউনাইটেডের বড় ভরসাও তিনি।

তবে পল পগবাকে নিয়ে আছে বিশাল সংশয়। সবশেষ ট্রেনিং সেশনে মাঠে ছিলেন না এই ফ্রেঞ্চ মিডফিল্ডার। পগবার মতই ইঞ্জুরির কারণে ম্যাচটি মিস করবেন মার্কোস রোহো, অ্যান্দার হেরেরা, ড্যালে ব্লিন্ড এবং ফিল জোন্স। পগবা না ফিরলেও ফিরেছেন অ্যান্থনি মার্শিয়াল। মারুয়ান ফেলাইনি এবং ইব্রাহিমোভিচ। সেভিয়ার হয়ে ম্যাচটি মিস করবেন সাবেক ম্যান সিটি উইঙ্গার নাভাস, লিওনেল কারোলে এবং সেবাস্তিয়ান কোর্চিয়া।

 

 

৪-২-৩-১ ফর্মেশনে খেলতে অভ্যস্ত দু'দলের মধ্যে ব্যবধান গড়ে দিতে পারে মাঝ মাঠের লড়াইটাই। আগামীকাল পাশে পগবাকে হয়ত বেশ মিস করবেন নেমানিয়া মাতিচ। তবে সমাধানও আছে মরিনহোর হাতে স্কট ম্যাকটমিনে। এছাড়া পারেহা বনাম লুকাকু, মার্কাদো বনাম সানচেজ, কোরেয়া বনাম ইয়ং, রাশফোর্ড বনাম এস্কুদেরোর মধ্য একক লড়াইগুলোই গড়ে দিতে পারে ম্যাচের ভাগ্য। নিজেদের মাঠে হওয়ায় শুরু থেকেই স্বভাবসুলভ প্রেসিং ফুটবলেই সেভিয়াকে তটস্থ রাখতে চাইবে ইউনাইটেড। আর সেভিয়ার মূল লক্ষ্য হবে প্রতি আক্রমণে ওল্ড ট্রাফোর্ডের মুখের হাসি কেড়ে নেওয়া।

সম্ভাব্য একাদশঃ

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড (৪-২-৩-১): ডি গেয়া; ভ্যালেন্সিয়া, বাই, স্মলিং, ইয়ং; ফেলাইনি, মাতিচ; রাশফোর্ড, মাতা, সানচেজ; লুকাকু

সেভিয়া (৪-২-৩-১): রিকো; মার্কাদো, পারেহা, লঙ্গলে, এস্কুদেরো; এন'জঞ্জি, বানেগা; সারাবিয়া, ভাজকেজ, কোরেয়া; ইয়েদের

 

ইতিহাস, ফর্ম- কোনোটিই নেই সেভিয়ার পক্ষে। ইংল্যান্ডে সর্বশেষ চার ম্যাচে মাত্র একবার ড্র করেছে তারা, হেরেছে বাকি তিনটিতেই। ওদিকে এই চ্যাম্পিয়নস লিগের এই মৌসুমে মাত্র তিন গোল হজম করেছেন ডি গেয়ারা। সেভিয়া কি পারবে শেষ আটে জায়গা করে নিতে? নাকি ওল্ড ট্রাফোর্ডেই লেখা হবে ইউনাইটেডের আরও এক বিখ্যাত ইউরোপিয়ান রাতের কল্পগাঁথা?

 

শাখতারের অনুপ্রেরণা ইতিহাস

রোমা বনাম শাখতার দনেৎস্ক; স্তাদিও অলিম্পিকো; প্রথম লেগ স্কোরঃ ১-২; ১৩(১৪) মার্চ, ২০১৮; রাত ১ঃ৪৫;  টেন ১

 

ইউক্রেনে প্রথম লেগের শুরুতেই চেঙ্গিস উন্দারের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল রোমা। কিন্তু দুই লাতিন আমেরিকান ফ্রেড এবং ফাসুন্দো ফেরেইরার গোলে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছিল শাখতার। কিন্তু 'অ্যাওয়ে' গোল থাকায় এবং মাত্র এক গোলের ব্যবধানে ম্যাচ হারায় দ্বিতীয় লেগের আগে সুবিধাজনক অবস্থানে আছে রোমাই। ইতালির শীর্ষসারির দলটির এই অবস্থার অন্যতম মূল কৃতিত্বের দাবিদার গোলরক্ষক অ্যালিসন বেকার। পুরো ম্যাচে অন্তত তিনটি নিশ্চিত গোল বাঁচিয়েছেন এই ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক। পরের রাউন্ডে গেলে অ্যালিসনকে একটি ধন্যবাদ জানাতেও পারেন রোমার ফুটবলাররা।

মহাগুরুত্বপূর্ণ দ্বিতীয় লেগের আগে মিডফিল্ডার রিক কার্সড্রপ বাদে সবাইকেই পাচ্ছে রোমা। দলে ফিরেছেন ইতালিয়ান কিংবদন্তী ড্যানিয়েল ডি রসি এবং ম্যাক্সিম গোনালন্স। রোমার মত দল নির্বাচনে এতটা নির্ভার থাকতে পারছেন না কোচ পাউলো ফন্সেকা। ইঞ্জুরির কারণে থাকছেন না ওয়েলিংটন, ক্রিভস্টভ এবং রাকিৎস্কি। ওদিকে বহিষ্কারাদেশের কারণে ম্যাচটি মিস করবেন অধিনায়ক দারিও স্রনা। তবে দলে ফিরেছেন প্রথম লেগের দুই সেরা তারকা টাইসন এবং ফেরেইরা।

 

 

কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার শেষ বাঁধার সামনে শাখতারকে ভরসা পাচ্ছে চ্যাম্পিয়নস লিগে তাদের বর্তমান ফর্মে। নিয়েদের শেষ ৫ ম্যাচের ৪টিতেই জিতেছে ইউক্রেনের চ্যাম্পিয়নরা। ক্লাব ফুটবলের সর্বোচ্চ মর্যাদার এই টুর্নামেন্টে প্রথম লেগ ২-১ গোলে হারা দলই পরবর্তী রাউন্ডে গেছে বেশিবার (২৩ বারে ১২ বার)। কিন্তু এই একই ব্যবধানে চারবার প্রথম লেগ হেরেছিল রোমা, পরের রাউন্ডে যেতে পারেনি একবারও।

 

সম্ভাব্য একাদশঃ

রোমা (৪-৩-৩): অ্যালিসন; ফ্লোরেঞ্জি, মানোলাস, ফাজিও, কোলারভ; নাইঙ্গোলান, ডি রসি, স্ট্রুটম্যান; উন্দার, জেকো, পেরোত্তি

শাখতার দনেৎস্ক (৪-২-৩-১): পিয়াতভ; বাটকো, অর্ডেটস, স্মোলভ, ইস্মাইলি; ফ্রেড, স্টেপানেঙ্কো; মার্লোস, টাইসন, বার্নার্দ; ফেরেইরা

শাখতার কি পারবে প্রায় বছর আটেক পর আবারও ইউরোপসেরাদের টুর্নামেন্টের শেষ আটে পৌঁছাতে? নাকি এডিন জেকো, উন্দারে সওয়ার হয়ে পরের রাউন্ডে যাবে রোমা?