X
GO11IPL2020
  • ক্রিকেট

টেস্টে আট নম্বরে উঠার সুযোগ বাংলাদেশের সামনে

পোস্টটি ১৫০৩৬ বার পঠিত হয়েছে
'আউটফিল্ড’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। এখানে প্রকাশিত সব লেখা-মন্তব্য-ছবি-ভিডিও প্যাভিলিয়ন পাঠকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ উদ্যোগে করে থাকেন; তাই এসবের সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক ও মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।

অস্ট্রেলিয়ার সাথে একটি টেস্ট জিতলে এবং অপর টেস্টটি ড্র করতে পারলেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টপকে টেস্টে বাংলাদেশ র‍্যাংকিং এ আট নম্বরে উঠে যাবে। বাংলাদেশের র‍্যাটিং হবে ৭৮.৫৫। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের র‍্যাটিং থাকবে ৭৪.৬২। অর্থাৎ সিরিজ জিতলেই  আট নম্বর পজিশন নিশ্চিত করবে বাংলাদেশ। উল্লেখ্য ওয়ানডে র‍্যাংকিং এ শ্রীলংকা এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের উপরে সাত নম্বর পজিশনে রয়েছে বাংলাদেশ।

7979748-3x2-700x467

বাংলাদেশ বর্তমানে যে ফর্মে আছে তাতে সিরিজ জয়ের আশা করাই যায়। ঘরের মাঠে তারা শক্তিশালী  ইংল্যান্ডকে একটি ম্যাচ হারিয়েছে এবং সিরিজটি ড্র করেছে। যদিও প্রথম ম্যাচটিও জয়ের খুব কাছাকাছি ছিল যেটি জিতলে সিরিজ হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ ছিল। এমনকি শ্রীলংকার মাটিতেই শ্রীলংকাকে টেস্টে হারিয়েছে। তাই নিজেদের কন্ডিশন কাজে লাগিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সাথে সিরিজ জয়ের চিন্তা বাংলাদেশ সমর্থকরা অবশ্যই করতে পারেন।

বাংলাদেশের জন্য আরও বড় সুখবর আছে। সিরিজ ড্র করলেও আটে উঠার সুযোগ থাকবে। সেক্ষেত্রে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ড সিরিজের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইংল্যান্ডের সাথে ০-৩ এ হারলেই বাংলাদেশ আটে উঠে যাবে। তবে আপাতত ইংল্যান্ডের সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সিরিজে ফলাফল যাই হোক না কেন তা কোন প্রভাব ফেলবে না। কারণ বাংলাদেশ সিরিজ শেষ হবে ৮ সেপ্টেম্বর এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ শেষ হবে ১১ সেপ্টেম্বর। সিরিজ শেষ হলেই কেবল টেস্ট র‍্যাংকিং হিসাব করা হয় (ওয়ানডের মত ম্যাচ বাই ম্যাচ করা হয় না)। তাই ইংল্যান্ডের সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইতিবাচক ফলাফল করলেও অন্তত তিনদিনের জন্য বাংলাদেশ আটে উঠে যাবে। আর ইংল্যান্ডের সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ভাল করার সম্ভাবনা কম।

তবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া শেষ পর্যন্ত সফরটি করবে কিনা এ নিয়েই সন্দেহ আছে। তাই সব হিসাব নিকাশের আগে অস্ট্রেলিয়ার সফরটি হতে হবে।