X
GO11IPL2020
  • ফুটবল

রোমের সম্রাট

পোস্টটি ২৪৮৩ বার পঠিত হয়েছে
'আউটফিল্ড’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। এখানে প্রকাশিত সব লেখা-মন্তব্য-ছবি-ভিডিও প্যাভিলিয়ন পাঠকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ উদ্যোগে করে থাকেন; তাই এসবের সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক ও মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।

ইসসসসসসসস…………………………এটা তোমাদের জন্য অনেক সহজ । এইতো এখানেই আমরা।  সময় চলে এসেছে । আমাকে শুনতে পাচ্ছ ? যেন দেখতে অনেকটা কন্সার্টের মত মনে হচ্ছে । দুঃখ জনক হলেও সত্যি সময়টি চলে এসেছে যদিও আমি ভেবেছিলাম এটা কখনই আসবে না । এই দিনগুলোতে আমি আমার সম্পর্কে অনেক কিছুই পড়েছি । ভাল , সুন্দর লেখা । আমি অনেক কেঁদেছি , প্রত্যেকদিন আমার নিজেকে উন্মাদ্গ্রস্ত মনে হয়েছে কারণ এই পচিশ বছর কখনই ভোলার মত নয় । তোমরাই পিছনে থেকে আমাকে সাহায্য করেছ এই ভাল ও খারাপ সময়গুলো  অতিক্রম করতে । এই জন্যই আমি এখানে তোমাদের ধন্যবাদ দিতে চাই যদিও এই পরিস্থিতিতে এটা সহজ নয় । তোমরা জানো আমি খুব বেশি কথা বলতে পারি না কিন্তু আমি অবশ্যই অনেক বেশি চিন্তা করি । এই দিনগুলোতে আমি আমার স্ত্রী  এর সাথে অনেক কথা বলেছি এই জার্সি , এই অনন্য জার্সি নিয়ে ।

আমি তোমাদের জন্য একটি চিঠি ও নিয়ে এসেছি । আমি আশা করি আমি সেটা তোমাদের পড়ে শুনাতে পারব । যদি আমি না পারি তবে আমার মেয়ে চ্যানেল তোমাদের পড়ে শুনাবে কারণ সে এটা ভালবাসে ।

আমার মনে হচ্ছে তোমরা অনেক ক্ষুধার্ত , এটা ডিনার করার সময় । বেশি দেরি হওয়ার আগেই আমি চলে যাব যদিও আমি আরও পচিশ বছর এখানে থেকে যেতে চাই ।

 

tot

 

ধন্যবাদ রোম

ধন্যবাদ মা , বাবা , ভাইসহ আমার পুরো পরিবার এবং বন্ধুবান্ধবদের । ধন্যবাদ আমার স্ত্রী , ছেলেমেয়েদের যাদের জন্য আমি এতদূর আসতে পেরেছি ।

আমি শেষ থেকেই শুরু করতে চাই । বিদায় সম্ভাষণ থেকেই কারণ আমি জানি না আমি এর পুরোটা পড়তে পারব কিনা ।

এখানে আমার কাটানো পুরো সময়টাকে কয়েকটি বাক্যে বলা সত্যিই অসম্ভব । আমি এটাকে গানের বা অন্য কিছুর আকারে বলতে ভালবাসতাম কিন্তু তোমরা তো জানোই আমি এটাতে খুব একটা ভাল নই । আমি আমার পা দিয়েই এই পুরো সময়টা লিখতে চেষ্টা করেছিলাম যেটাই আমার কাছে সহজ মনে হয়েছে । তোমরা জানো আমার প্রিয় খেলনা কি ছিল ? ফুটবল । এটা এখনো আছে । কিছু সময়ে আমরা বড় হয়ে যাই । তারা আমাকে বলে সময় এভাবে কাজ করে , জঘন্য ব্যাপার  

১৭ জুন , ২০০১। সময়টা প্রায় একই । তখন আমরা আশা করছিলাম সময়টা অনেক দ্রুত চলে যাবে । রেফারির বাঁশি বাজার জন্য আমরা অপেক্ষা করতে পারছিলাম না । সেই অনুভূতি গুলো আমার এখনো কাজ করে ।

আজ সময় আমার দরজার সামনে এসে বলছে “ আমাদের উঠতে হবে । কাল থেকেই তুমি বৃদ্ধ হতে চলেছ । তোমার শর্ট এবং মোজা খুলে নাও কারণ কাল থেকেই তুমি কাছে থেকে এই ঘাসের গন্ধ গুলো আর উপভোগ করতে পারবে না । তোমার চোখের যেই সূর্য নিয়ে  তুমি গোলের দিকে দৌড়ে যাও , সেই আড্রেনালিন গুলো যেগুলো তোমায় গ্রাস করে , যেই পরিপুর্নতা তোমার এই উদযাপনে সেগুলো আর কক্ষনো তুমি নিতে পারবে না । “

আমি এই দিনগুলোতে নিজেকে জিজ্ঞেস করেছিলাম “ তারা কেন আমাকে আমার স্বপ্ন থেকে জাগিয়ে তুলছে ? “

তোমাদের মনে পড়ে যখন তোমরা অনেক ছোট ছিলে তোমরা অনেক সুন্দর স্বপ্ন দেখতে এবং তোমাদের মা এসে তোমাদের জাগিয়ে দিত কারণ স্কুলের সময় হয়ে যেত । কিন্তু তুমি বিছানায় থেকে ঘুমাতে পছন্দ করতে ।

এবং তুমি আবার এই গল্পে ফিরে যেতে চেষ্টা কর কিন্তু সফল হতে পার না ।  

এই সময় এটা কোন স্বপ্ন নয় , এটা বাস্তব জীবন । এই চিঠি তোমাদের সবার জন্য , সেই বাচ্চাদের জন্য যারা আমার জন্য উল্লাস করত , তাদের জন্য যারা এক সময় শিশু ছিল কালের বিবর্তনে এখন পিতা হয়েছে , তাদের জন্য যারা আজও গ্যালারি থেকে চিৎকার করছে “ টট্রি গোল “  ।

আমি তোমাদের ধন্যবাদ দিতে পছন্দ করি কারণ আমার ক্যারিয়ার তোমাদের জন্য একটি গল্প হবে যা তুমি মানুষকে বলবে

এখন এটা সত্যি শেষ হয়ে গেছে । শেষবারের মত আমি আমার শার্ট তুলে নিয়েছি এবং এটাকে ভাঁজ ও করে রেখেছি যদিও আমি জানি আমি এটা করতে এখনো প্রস্তুত নই ।  

 

totti love

 

আলোগুলো নিভিয়ে দেয়া সত্যি সহজ নয়  । এখন আমি ভীত । এটা ঠিক সেই একই ভয় নয় যা একটি পেনাল্টি থেকে স্কোর করার সময় কাজ করে । এই সময় আমি জালের ছিদ্র গুলো দিয়ে দেখতে পাচ্ছি না সামনে কি আসতে চলেছে ।

আমাকে ভীত হতে দাও । এই শেষ সময়ে আমিই একমাত্র লোক যে তোমাদের চায় এবং তোমাদের সেই উষ্ণতা গুলো যা তোমরা আমায় দিতে পার এবং  তাদেরকে যারা সবসময় আমাকে পথ দেখিয়েছে ।  তোমাদের সাথে নিয়েই আমি পৃষ্ঠা উল্টাতে পারব , পারব নতুন দুঃসাহসিক কোন কাজের শুরু করতে ।

এখন সময় হয়েছে আমার সকল সতীর্থকে , সকল স্টাফদের , সকল ম্যানেজারদের, তাদের প্রত্যেককে যারা আমার পাশে থেকে এই সকল বছরে  কাজ করে গেছে তাদের সবাইকে আমার অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ জানানোর ।

 আমার পা গুলো হয়ত তোমাদের আর আনন্দ দিতে পারবে না কিন্তু আমার হৃদয় সবসময় তোমাদের সাথে থাকবে এখন আমি সিঁড়ি দিয়ে সেই লকার রুমে যাব যার সাথে আমার পরিচয় হয়েছিল যখন আমি শিশু ছিলাম আজ পরিণত হয়েই আমি সেই রুম ত্যাগ করব

রোমান হয়ে জন্ম নেয়া এবং রোমার ভক্ত হওয়া একটি আশির্বাদ । এবং রোমার ক্যাপ্টেন হওয়া তো আরেকটি সম্মানজনক অর্জন । তোমরাই ছিলে আমার জীবন এবং তোমরাই থাকবে । 

( https://www.reddit.com/r/soccer/comments/6dvoh0/tottis_farewell_speech_translation/   থেকে নেয়া ফ্রান্সিস্কো টট্রির বিদায়ী ভাষণের বাংলায় অনুবাদকৃত অংশ  )