• ক্রিকেট

২০১৯ বিশ্বকাপ - পাশে ধোনি, সেটাই বিরাটের বিশ্বকাপ জয়ের ভরসা

পোস্টটি ২৫৮৯ বার পঠিত হয়েছে

GettyImages-992950518

ধোনি-বিরাটের যুগলবন্দী  (ছবি - গেটি)

৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে শুরু হচ্ছে ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ ক্রিকেট। ভারত বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে ৫ জুন টাইটানিকের শহর সাউদাম্পটনে৷ বিরাটদের প্রথম প্রতিপক্ষ ‘চোর্কাস বা দুর্ভাগা’ খ্যাত দল দক্ষিণ আফ্রিকা। বিশ্বকাপে মাঠে নামার আগে দু’টি প্রস্ততি ম্যাচ খেলবে টিম ইন্ডিয়া৷ ২৫ মে লন্ডনে বিরাটের প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচ নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে৷ দ্বিতীয় ওয়ার্ম-আপ ম্যাচ ২৮ মে কার্ডিফে৷ প্রতিপক্ষ দল পার্শ্ববর্তী বাংলাদেশ৷ ভারতের বিশ্বকাপ দলে জায়গা পেয়েছেন নতুন ৭ ক্রিকেটার। তারা প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলবেন। মহেন্দ্র সিং ধোনি-রিবাট কোহলির মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের সঙ্গে ভারতের বিশ্বকাপ দলে নতুন মুখ হিসেবে রয়েছেন লোকেশ রাহুল, কেদার যাদব, বিজয় শঙ্কর, হার্দিক পন্ডিয়া, কুলদীপ যাদব, জাসপ্রিত বুমরাহ ও যুজবেন্দ্র চাহালরা। এরা সবাই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ খেলবেন। বিশ্বকাপে অভিষেক হবে আরেকজন অভিজ্ঞ খেলোয়াড় দীনেশ কার্তিকের। ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা হলেও একটি ম্যাচও খেলা হয়নি। এক যুগ পর আবারও বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেলেন ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার।

Kohli

ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াড (ছবি- ক্রিকবাজ)

ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে কে থাকবে আর থাকবেনা তা আগে থেকেই নির্দিষ্ট হয়েছিল। তবে দলের চার নম্বর পজিশনে কে খেলবেন তা নিয়েই আলোচনার হিড়িক বসে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে। এই পজিশনের জন্য তিন জন খেলোয়াড় লড়াই করেন। চ্যাম্পিয়নস ট্রফির পর সবচেয়ে বেশি সুযোগ পাওয়া আম্বাতি রায়ডুর রাইডুর জায়গা হয়নি। একইসাথে ভারতীয় সমর্থকেরা আশা করেছিল সে পজিশনে বিশ্বকাপে ঝড় তুলতে পারবে ঋষভ পন্ত। এই দুইজনকে রেখে বোর্ড ভরসা রেখেছে দীনেশ কার্তিকের উপর। জায়গা না পাওয়ায় ক্ষোভে আম্বাতি রায়ডু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ‘বিশ্বকাপ দেখার জন্য বিশেষ থ্রিডি চশমা অর্ডার করেছি’ লিখে ব্যপক বিতর্কের সৃষ্টি করেছিল। 

স্কোর বোর্ডে রানের পাহাড় গড়ার জন্য আছেন অভিজ্ঞ বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, মহেন্দ্র সিং ধোনিরা। ভারত দলের ওপেনিংয়ে রহিত শার্মার সাথে শিখর ধাওয়ান খেলবেন তা নিশ্চিত। ওপেনিং জুটি ভেঙে গেলেই মাঠে নামবেন সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। পরের চার পজিশনে আলোচনার জন্ম দিয়ে স্কোয়াডে আসা দীনেশ কার্তিক। অবশ্য অনেকেই মনে করছেন কেএল রাহুলকে তিন নাম্বারে নামিয়ে বিরাট কোহলিকে চারে খেলাতে পারে। প্রথম চারের সমাধান দেখা যাবে ৫ জুন, কিভাবে সিদ্ধান্ত নিবে ভারত।       

অলরাউন্ডার হিসেবে মাঠে ভারতের দলে বিশেষ ভুমিকা রাখবে হার্দিক পান্ডিয়া। স্কোয়াডে তার জায়গা পাওয়া নিয়ে কোনো প্রশ্নই ছিলনা। সাম্প্রতিক সময়ে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে যাচ্ছেন এই অলরাউন্ডার। এছাড়া অলরাউন্ডার ভূমিকায় আরো থাকবেন কেদার যাদব, রবীন্দ্র জাদেজা এবং বিজয় শংকর। ২০১৯ বিশ্বকাপে চার জন অলরাউন্ডার নিয়ে ব্রিটেনের উদ্যেশ্যে পাড়ি জমাবে টিম ইন্ডিয়া।   

বোলিং ইউনিটে ভারত দলে রয়েছে বর্তমান সময়ের আরেকজন পরিচিত মুখ জ্যাস্পিত বুমরাহ। এছাড়া আরো দুইজন অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ পেসার ভুবেনেশ্বর কুমার ও মোহাম্মদ সামি যাচ্ছেন ইংল্যান্ডে। আর স্পিন বিভাগে অভিজ্ঞ রবীন্দ্র জাদেজার সঙ্গে আছেন-কুলদীপ যাদব ও জুযবেন্দ্র চাহাল। 

প্লেয়ার টু ওয়াচ 

IND

বিরাট কোহলি 

দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার সাথে দুর্দান্ত ইনিংস বিরাট কোলহির কাছ থেকে দেখার সম্ভাবনা রয়েছে। ১১ বছরের ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপে খেলার অভিজ্ঞতা হবে কোহলির। কোহলির নেতৃত্বে ৬৮ ম্যাচের মধ্যে ৪৯ ওয়ানডে জিতেছে ভারত। আট বছর আগে ২০১১ সালে দেশের মাটিতে যখন শিরোপা জেতেন, তখন বয়স ছিল মাত্র ২২ বছর। ভারতের দলে বিরাট মানেই রেকর্ডের খাতা নতুন করে লিখতে হবে। সাম্প্রতিক সময়ে একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড় কোহলির। শতক করাটাকে যেন অভ্যাসে পরিণত করেছেন তিনি। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মাত্র ২২৭ ম্যাচে প্রায় এগারো হাজার রান। গড়ে ৫৯.৬ রানে ৯৩ স্ট্রাইক রেটিং রয়েছে এই ব্যাটসম্যানের। তাই বিশ্বকাপের স্পটলাইটে থাকবেন এই সেঞ্চুরি ম্যান।     

 

'প্যাভিলিয়ন ব্লগ’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। প্যাভিলিয়ন ব্লগে প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি এবং ভিডিওর সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক এবং মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।