• অন্যান্য

আমার দেখা বাংলাদেশ ক্রিকেট

পোস্টটি ১২৭৪ বার পঠিত হয়েছে
আমাদের দেশের ক্রিকেট সংস্কৃতির বয়স খুব বেশি দিনের না হলেও আমরা ক্রিকেট দিয়ে অনেক জায়গায় দেশের নাম উজ্জ্বল করেছি। দেশের ক্রিকেট নিয়ে কেউ সিরিয়াস ছিলো না। ছিলো না কোন ভক্ত তবে কিছু ছিল পাগল ভক্ত।আমি তাদের-ই একজন নিজেকে মনে করি।আর এই বিষয়টি দিয়ে আমার প্যাভিলিয়ন-এ অভিষেক ঘটতে যাচ্ছে। এজন্য প্রথমে প্যাভিলিয়নকে অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। দেশের ক্রিকেটের জন্মের অনেক পরে আমার জন্ম হোওয়াতে ক্রিকেট সম্পর্কে তেমন না জানলেও খেলাটা দেখতে অনেক ভাল লাগে। ভালো লাগার জন্মটাই আজ জানাবো। প্রথম যখন টিভির রিমোট হাতে পাই তখন আমার সৌভাগ্য হয়েছিল দুটি চ্যানেল দেখার বিটিভি আর ডিডি ন্যাশনাল (এটা ভারতের চ্যানেল) । সারাদিন এগুলো-ই দেখতাম। এখানকার মতো প্রত্যেক ঘরে ঘরে ক্যাবল অপারেটররা যে ক্যাবল পৌঁছে দিয়েছে তার সৌভাগ্য আমার তখন হয় নাই।তার কারন আমি গ্রামেই মানুষ হয়েছি। তো এবার আসা যাক আসল কথায়। একদিন বিকেলে বাবা কলেজ থেকে বাসায় আসলে সাথে সাথে আমার কাছে থেকে রিমোট টা চাইলে আমি সাথে সাথে তা দিয়ে দেই। এরপর বাবা যে চ্যানেল চালু করল তা একবারি বিরক্তিকর।আমি দেখলাম বাবা বিটিভি চালু করল। কিন্তু আজ বিটিভিতে অন্যরকম কিছু দেখছি।বাবা বললেন আজ বাংলাদেশের খেলা চলছে।আমি কিছু না বলে বিরক্তির সঙ্গে দেখতে লাগলাম।এরপর বাবা পরপর কয়েকটা দিন এভাবেই দেখতে লাগলো। তারপর আবার মাঝে অনেক দিন বিরতি থাকার পর হঠাৎ বাবার মুখে খেলার কথা শুনলাম "আজ বাংলাদেশের খেলা আছে"কথাটা শুনে অনেক বিরক্ত লাগলো। তার আগে আরও একটি কথা বলি বাবা যেদিন কোন কারণে কলেজ থেকে বাসায় ফিরে আর বাহিরে বেরই না সেদিন আমার আর বাহিরে কোথাও খেলতে যাওয়া বা টিভি দেখা হয় না। পড়তে হবে বলে ফাঁকি দেয়ার জন্য আমি হয় ঘুমাতাম না-হয় বাবা যাই করতো আমি তা দেখতাম। যেহেতু বাবা খেলা দেখতো তো আমি তাই দেখতাম। সেদিন খেলা দেখা শেষে বাবা অনেক খুশি হল কারন বাংলাদেশ জিতেছে!!! তো সেদিন খেলা শুরুতে বিরক্ত লাগলেও শেষে কেমন জানি অনেক ভালো লাগলো।পরের দিন স্কুলে গিয়ে বন্ধুদের সাথে মাঠে বড় ভাইদের ক্রিকেট খেলা দেখে আমি তাদের কে বলি জানিস কাল বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলা ছিল আর বাংলাদেশ সেখানে জয়ী হয়েছে।ওরা কেউ কিছু বুঝে নাই সেদিন। পরের দিন খেলা ছিল বলে আমি তাদের কে বলি তারা যেন দেখে। এবার সেই পরের দিন যখন আসলো আজ কেন জানি বাবা আসার আগেই আমি খেলা দেখার জন্য টিভি চালু করে রাখছি আর কেমন জানি একটা অনুভুতি কাজ করছে।বাবা আসার পর দেখে তো অবাক কারন তিনি বুঝতে পারেন খেলা দেখাটা আমার বিরক্ত লাগে।তো আমাকে অবাক হয়ে-ই জিজ্ঞাসা করে কী-রে আজ খেলা দেখার জন্য খুব উদগ্রীব।আমি কিছু না বলে চুপ থাকি। খেলা শুরু হল।আমি যেহেতু কিছু বুঝতাম না সেদিন বাবাকে জিজ্ঞেস করলে সব বুঝিয়ে দেওয়ার পর সবকিছু যেন অন্যরকম লাগলো।পুরো খেলা দেখলাম তবে আমার ক্রিকেট শেখা প্রথম ম্যাচ টা বাংলাদেশ আর জিততে পারলো না। অন্যান্য দিন যেটা অনেক বিরক্ত লাগতো আজ সেটার জন্য ই কেন জানি খুব খারাপ লাগলো। আর এভাবেই আমার খেলা দেখার জন্ম। এরপর থেকে আমি প্রত্যেক টা ম্যাচ দেখার চেষ্টা করি। তখন খেলা দেখলে মানুষ হাসতো।তবে সবচেয়ে বেশি খারাপ লাগতো ক্রিকেটার " তামিম ইকবাল" এর কথা বললে। কারন যেদিন তার অভিষেক হয় সেদিন বাংলাদেশে আমি নামক পাগলের ক্রিকেট ভক্তদের মাঝে যুক্ত হয়।আর তাই " তামিম ইকবাল" ভাই আমার প্রিয় খেলোয়াড়।সে প্রথমদিকে খুব ভালো খেললেও পরবর্তীতে সে নামলেই মানুষ বলাবলি করতো বাজি ধরতো তামিম কত বলে আউট হবে।।। আজও মনে পড়ে সেই দিনগুলোর কথা।। আজ আমার দেশ সকলকে হারাতে পারে। আর সেদিনের তামিম আজ বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় এতে নিজের অনেক ভালো লাগে।। দেশে আজ ক্রিকেট মানেই অন্যকিছু।।তবে খেলা দেখাটা এখন সবকিছুর আগে হয়ে দাঁড়িয়েছে।কারন দেশের খেলা কেন জানি সেদিন আর পড়াশোনার ইচ্ছা জাগে না।।। যাই-হোক, ক্রিকেট সম্পর্কে কলাম লেখার আগে জানিয়ে দিলাম এই পাগল ভক্তের ক্রিকেট জীবনী। জানি না লেখাটি কতটা যৌক্তিক । যেহেতু এটি আমার জীবনের প্রথম লেখা যদি অযৌক্তিক হয় ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।।।
'প্যাভিলিয়ন ব্লগ’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। প্যাভিলিয়ন ব্লগে প্রকাশিত লেখা, মন্তব্য, ছবি এবং ভিডিওর সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক এবং মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।