• ক্রিকেট

হারিয়ে যাওয়া প্রতিভা-২য় পর্ব

পোস্টটি ২৫৬৮ বার পঠিত হয়েছে
'আউটফিল্ড’ একটি কমিউনিটি ব্লগ। এখানে প্রকাশিত সব লেখা-মন্তব্য-ছবি-ভিডিও প্যাভিলিয়ন পাঠকরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে নিজ উদ্যোগে করে থাকেন; তাই এসবের সম্পূর্ণ স্বত্ব এবং দায়দায়িত্ব লেখক ও মন্তব্য প্রকাশকারীর নিজের। কোনো ব্যবহারকারীর মতামত বা ছবি-ভিডিওর কপিরাইট লঙ্ঘনের জন্য প্যাভিলিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। ব্লগের নীতিমালা ভঙ্গ হলেই কেবল সেই অনুযায়ী কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন।

ড্যারেন লেহম্যান :

 

 

 

 

1627916589424

 

 

 

প্রচারের আলোয় কখনই আসতে পারেনি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ার অন্যতম সফল বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ড্যারেন লেহম্যান।মাত্র সতের বছর বয়সে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে তার আবির্ভাব।লেহম্যানের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সুযোগ ছিল সীমিত।স্পিনারদের বিরুদ্ধে সাবলীল হাওয়ায় উপমহাদেশে নির্বাচকরা লেহম্যানকে নির্বাচন করত।১৯৯৮ সালে ভারতের বিরুদ্ধে তার টেস্ট অভিষেকে তার ব্যাট থেকে আসে ৫২ রানের মূল্যবান ইনিংস।এরপর পাকিস্তান সফরে প্রথম টেস্টে ৯৮ রানের ইনিংস।এই সফরেই ক্যারিয়ারের প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শতরানের দেখা পায়।১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপ দলেও জায়গা করে নেয়।ফাইনালে লেহম্যাননের ব্যাট থেকেই জয়সূচক রানটি আসে।একদিনের দলে জায়গা পেলেও টেস্টে উপেক্ষিত থেকে যায়।সেই ফাঁকে ভারত সফরে ম্যাথু হেডেনের ব্যাট রানের বন্যা বইয়ে দিলে লেহম্যানের পক্ষে দলে ফিরে আসা আরও কঠিন হয়ে পড়ে।তবে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে তার ব্যাট থেকে রান আসতেই থাকে।ক্যারিয়ারের সবচেয়ে সফল বলতে গেলে ২০০৩/০৪ ক্রিকেট মৌসুম।এই বছরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট শতরান করার পর বাংলাদেশের বিপক্ষে শতরান করে অজি টেস্ট দলে তার অবস্থান যখন সুদৃঢ় হতে চলেছে ঠিক তখনই আবার ইনজুরির হানা। শ্রীলঙ্কা সফর তার জীবনের সেরা বলা যেতে পারে। মুরালিধরনের স্পিন খেলে তিন ম্যাচ সিরিজে দুটি শতরান সহ সর্বাধিক ৩৭৫ রান করে সিরিজ সেরার পুরস্কার পায়।তার প্রাধান্য বিস্তারকারী ইনিংসের সুবাদে অস্ট্রেলিয়া ৩ -০ ব্যবধানে সিরিজ জয় করে।কিন্তু এমন একটি সফল সিরিজের পরেও তার ক্যারিয়ারে কাঙ্খিত গতি আসেনি।সেই সময়ে সায়মন ক্যাটিচ, শেন ওয়াটসন,মাইকেল ক্লার্ক দের মত কিছু তরুণ খেলোয়াড়দের জায়গা করে দিতে টেস্ট দলে অনিয়মিত হয়ে যায়।২০০৫ সালের পর অস্ট্রেলিয়ার জার্সিতে তাকে আর দেখা যায়নি।২০০৭সালে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে নেয় প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে অন্যতম সেরা বাঁহাতি এই অজি  ব্যাটসম্যান।ছয় বছরের টেস্ট ক্যারিয়ার হলেও ২৭টির বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়নি।টেস্টে ৪৪.৯৫ গড়ে ১৭৯৮ রান আর ১১৭টি ওয়ানডে ম্যাচে ৩০৭৮ রান যা লেহম্যানের মত প্রতিভাবান ব্যাটসম্যানের সাথে বেমানান। অথচ প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ৫৭.৮৩ গড়ে ২৫০০০বেশি রান,৮১টি শতরান রয়েছে তার।

 

চলবে......

 

 

Images courtesy : www.gettyimages.com

 

 

তথ্যসূত্র : www.cricbuzz.com