• অন্যান্য খবর
  • " />

     

    বর্ণবাদের প্রতিবাদ করে লাল কার্ড দেখলেন ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার

    মাঠে ও বাইরে বাইরে দর্শকের বর্ণবাদী আচরণ নিয়ে বর্তমানে বেশ সোচ্চার ফুটবলাররা। দর্শকের বর্ণবাদের প্রতিবাদ করে মাঠ ছাড়ার হুমকিও দিয়েছেন অনেকেই। তবে এবার মাঠে বর্ণবাদী আচরণের প্রতিবাদ করে শাস্তি পেলেন শাখতার দোনেস্কের মিডফিল্ডার টাইসন। ডায়নামো কিয়েভের মাঠে বর্ণবাদের প্রতিবাদ করায় তাকে লাল কার্ড দেখিয়েছেন রেফারি। 

    ইউক্রেনিয়ান প্রিমিয়ার লিগে শাখতার-কিয়েভ ম্যাচে শুরু থেকেই শাখতারের টাইসন ও ডেন্টিনহোকে উদ্দেশ্য করে বর্ণবাদী মন্তব্য করছিল কিয়েভ সমর্থকদের একাংশ। বেশ কয়েকবার তাদের সতর্কও করেন রেফারি। শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ৭৩ মিনিটে খেলা বন্ধ করতে বাধ্য হন তিনি।

    ঐ সময় কিয়েভের দর্শকের দিকে তেড়েফুঁড়ে গিয়ে তাদের কথার প্রতিবাদ জানান টাইসন, তাদের মধ্যাঙ্গুলিও দেখিয়েছেন। এরপর ঐ দর্শকের দিকে সজোরে বলও লাথি মেরে পাঠিয়েছেন টাইসন। এমন অবস্থায় রেফারি ফুটবলারদের নিয়ে মাঠ ছাড়েন। তখন ক্যামেরাতে দেখা গেছে, টাইসন ও ডেন্টিনহো কাঁদছেন।

    প্রায় পাঁচ মিনিট বন্ধ থাকার পর ম্যাচ আবার শুরু হয়। তখনই দর্শককে মধ্যাঙ্গুলি দেখানোর দায়ে টাইসনকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। শাখতার ফুটবলাররা এমন ঘটনায় রীতিমত বিস্মিত। মিডফিল্ডার মার্কোস আন্তোনিও, গোলরক্ষক অ্যানড্রি পেটভ বলেছেন, দর্শকের বর্ণবাদী আচরণ তাদের বিস্মিত করেছে। শাখতার কোচ লুইস ক্যাস্ট্রো জানিয়েছেন, এমন ঘটনায় হতবাক তিনি, ‘যাদের বিরুদ্ধে বর্ণবাদী মন্তব্য করা হয়েছে, আমি তাদের পাশে আছি। এরকম ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। লড়াইটা আমাদের একসাথেই করতে হবে।’ 

    ফুটবলার, কোচের মতো প্রতিবাদ এসেছে শাখতার কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকেও। কিয়েভের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন তারা। গত সপ্তাহে সিরি আ-তেও বর্ণবাদের অভিযোগে দর্শকের দিকে লাথি মেরে বল পাঠিয়েছিলেন ব্রেসিয়ার মারিও বালোতেল্লি। মাঠ ছাড়ার হুমকি দিলেও শেষ পর্যন্ত সেটা করেননি তিনি।