• বাংলাদেশের ভারত সফর
  • " />
    X

     

    চার ধাপ এগুলেন মুশফিক

    ইন্দোরের পর কলকাতায়ও বাংলাদেশের দুর্গতি অব্যাহত ছিল। আঁধার ঘরের মাঝেই মিটমিট করে জ্বলেছেন মুশফিকুর রহিম, দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৪ রানের ইনিংসের জন্য কিছুটা এগিয়েছেন র‍্যাংকিংয়ে। খানিকটা এগিয়েছেন লিটন দাসও।

    ইন্দোরে দুই ইনিংসে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান করার পর মুশফিক উঠে এসেছিলেন মুশফিকুর রহিম। কলকাতা টেস্টের পর আরও চার ধাপ এগিয়ে এখন আছেন ২৬ নম্বরে। গত বছর মিরপুরে ডাবল সেঞ্চুরির পর উঠে এসেছিলেন ১৮ নম্বরে, টেস্টে এখনো সেটাই মুশফিকের সেরা র‍্যাঙ্কিং। লিটন দাস ইন্দোর টেস্টের পর ৮৬ নম্বরে উঠে এসেছিলেন। কলকাতায় ২৪ রান করে ফেলেছিলেন, এরপর মাথায় আঘাত পেয়ে উঠে যেতে হয়েছে। এখন আট ধাপ এগিয়ে উঠে এসেছেন ৭৬ নম্বরে।

    তবে এই সপ্তাহে সবচেয়ে বড় লাফ দিয়েছেন মারনাস ল্যাবুশেন ও বিজে ওয়াটলিং। পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৮৫ রান করে ২১ ধাপ লাফ দিয়ে এখন ১৪ নম্বরে উঠে এসেছেন ল্যাবুশেন। অথচ এই বছরের অ্যাশেজে স্মিথের কনকাশন সাব হয়ে যখন নেমেছিলেন, ৯৫ নম্বরে ছিলেন এই অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান। অন্যদিকে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি করে ওয়াটলিং এগিয়েছেন ১২ ধাপ, এখন আছেন ১২ নম্বরে। দুজনের ক্ষেত্রেই এটি ক্যারিয়ার সেরা। স্টোকস ব্যাটসম্যানদের তালিকায় প্রথমবারের মতো উঠে এসেছেন সেরা দশে। আর কলকাতায় সেঞ্চুরি করে শীর্ষে থাকা স্টিভ স্মিথের সঙ্গে ব্যবধান কমিয়েছেন বিরাট কোহলি, স্মিথের চেয়ে এখন তিন পয়েন্ট পিছিয়ে আছেন শুধু।

    বোলারদের মধ্যে তিন নম্বরে উঠে এসেছেন বে ওভালে আট নেওয়াট নেওয়া পেসার নিল ওয়াগনার। রেটিং পয়েন্ট হয়েছে ৮১৬, নিউজিল্যান্ডের বোলারদের মধ্যে এর চেয়ে বেশি রেটিং পয়েন্ট ছিল শুধু রিচার্ড হ্যাডলি আর ট্রেন্ট বোল্টের।