• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    পগবাকে মেসি-রোনালদোর মতো চাপ দেবেন না, অনুরোধ ফার্নান্দেজের

    গত ডিসেম্বর থেকে চোটের কারণে মাঠের বাইরে আছেন পল পগবা। তবে মাঠের বাইরে থাকলেও আলোচনার মাঝেই আছেন ফ্রান্সের এই বিশ্বকাপজয়ী মিডফিল্ডার। ২০১৭ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে দ্বিতীয় দফায় এসেছিলেন পগবা, ক্লাবের হয়ে এখন পর্যন্ত দুটি ট্রফিও জিতেছেন এই যাত্রায়। কিন্তু সমালোচকরা তবুও সন্তুষ্ট নন পগবাকে নিয়ে, তার সক্ষমতার ছিটেফোঁটাও এখনও ইউনাইটেডের জার্সিতে দেখাতে পারেননি বলেই মত তাদের। তবে এমন অবস্থায় ইউনাইটেডে তার নতুন সতীর্থ ব্রুনো ফার্নান্দেজকে পাশে পাচ্ছেন তিনি, মেসি-রোনালদোর মতো চাপ পগবার ওপর না দিতে সবাইকে অনুরোধ করেছেন তার নতুন শুভাকাঙ্ক্ষী ফার্নান্দেজ।

    ক্লাব ওয়েবসাইটের সাথে এক সাক্ষাৎকারে পগবার সমালোচনা করার বদলে তার বর্তমান অবস্থা বুঝতে সবাইকে অনুরোধ করেন ফার্নান্দেজ, “এখন পলের একটা খারাপ সময় যাচ্ছে। সে যখন খেলেছে তখন দল এবং ক্লাবের অবস্থা খুব একটা ভালো ছিল না। তবে পগবা দারুণ খেলোয়াড়, ইউনাইটেডও তার জন্যে অনেক খরচ করে, আর সেজন্য তার থেকে লোকের প্রত্যাশাও অনেক বেশি। সমালোচনা হওয়াটা তাই অস্বাভাবিক নয়। আপনি যখন এখন সুপারস্টার হবেন, কিন্তু সবসময় সেইমতো খেলতে পারবেন না, তখন এমনটা হতেই পারে। পগবার থেকে লোকের প্রত্যাশা অনেকটা জুভেন্টাসে রোনালদো এবং বার্সেলোনায় মেসির কাছে থেকে ভক্তদের প্রত্যাশার মতোই।”

    “সবাই পলের কাছ থেকে তেমন খেলাই আশা করে, কারণ এটা সবার জানা যে, তার সেভাবে খেলার সক্ষমতা রয়েছে। এটা পলের প্রতি মানুষের আস্থার বিষয়টিই নির্দেশ করে, দলেরও পলের সক্ষমতার ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে।”

    জানুয়ারিতে স্পোর্টিং লিসবন থেকে ওল্ড ট্রাফোর্ডে এসেছিলেন ফার্নান্দেজ। আসার পর দ্রুতই ওলে গানার সোলশারের দলের সাথে দারুণভাবে মানিয়ে নিয়েছেন এই পর্তুগিজ। একইভাবে জানুয়ারির দলবদলের শেষদিনে দলে আসা ফরোয়ার্ড অডিওন ইঘালোও ইউনাইটেডের খেলার গতি-প্রকৃতি বুঝে উঠতে খুব বেশি সময় নেননি। তারা দুজন দলে আসার পর থেকে চোটের কারণে মাঠে বাইরে থাকা পগবার সঙ্গে এখনও খেলা হয়ে ওঠেনি, তবে পগবার বিরুদ্ধে খেলার পূর্ব অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে দুজনই অকপটে স্বীকার করলেন, পগবা ফিরলেই বদলে ইউনাইটেডের মধ্যমাঠের চেহারা।

    পগবার দলে প্রত্যাবর্তনের জন্য তাই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন ফার্নান্দেজ, “আমি অপেক্ষায় আছি।আমাদের মধ্যমাঠে খেলার জন্য এরই মধ্যে অনেক ভালো খেলোয়াড় আছে। আমি জুভেন্টাসের সময় থেকে পলকে চিনি, কারণ ইতালিতে তার বিপক্ষে খেলেছি আমি। আর আমি বলছি, পগবার বিপক্ষে খেলা আসলেই অনেক কঠিন। আমি তার বিপক্ষে মিডফিল্ডে খেলেছি, আমার দায়িত্ব ছিল তাকে মার্ক করা। আমরা একই জায়গায় খেলেছি, আর পগবার বিপক্ষে খেলা কঠিন, কারণ তার খেলায় শক্তি এবং কারিকুরির দারুণ মিশেল রয়েছে।”

    “পলের মতো খেলোয়াড় খুঁজে পাওয়াও কঠিন। অতিকায়, শক্তিশালী এবং টেকনিক্যাল; আর এই সমস্ত গুণ সম্পন্ন খেলোয়াড় খুঁজে বের করা বেশ কষ্টসাধ্য। আশা করি পল দ্রুতই দলে ফিরে আসবে।”