• ফুটবল, অন্যান্য
  • " />

     

    শৈশবের ক্লাবকে সাহায্য করতে অবসর ভেঙে ফিরছেন রোবেন

    অবসর ভেঙে ফিরলেন ডাচ ফরোয়ার্ড আরিয়েন রোবেন। শৈশবের ক্লাব এফসি গ্রোনিঙ্গেনের হয়ে খেলতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। ২০১৯ সালে দীর্ঘ এক দশক জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে খেলার পর অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। তবে ২০১৮ সাল থেকেই এফসি গ্রোনিঙ্গেনের একটি সমর্থক গোষ্ঠী তারা আবারও ডাচ ক্লাবটিতে ফিরতে অনুরোধ করে আসছিল। একটি টার্নিপ ট্রাকে ‘আরিয়েন, তোমার মনের কথা শোন’ কথাটি লিখে ক্যাম্পেইনও চালিয়েছিল তারা। শেষ পর্যন্ত রোবেন সমর্থকদের আশা পূরণ করলেন, চুক্তি সই করলেন এফসি গ্রোনিঙ্গেনের সাথে।

    ২০০০ সালে এই ক্লাবটির হয়েই শুরু হয়েছিল রোবেনের ক্যারিয়ার। দুই বছর এখানে খেলার খেলার পর আরেক ডাচ ক্লাব পিএসভি আইন্দহোভেনে গিয়ছিলেন। এরপর চেলসি এবং রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে ২০০৯ সালে মিউনিখে পা রেখেছিলেন তিনি। এরপর এক চোখের পলকে কেটে গেছে রোবেনের ‘গতিময়’ এক দশক। বায়ার্নের জার্সি গায়ে সম্ভাব্য সব সাফল্যই ধরা দিয়েছে তার কাছে। তবে ২০১৯ সালে এসে ‘মন সায় দিলেও শরীর সায় দিচ্ছে না’ মন্তব্যের সঙ্গে যবনিকাপাত হয়েছিল তার পেশাদার ফুটবল ক্যারিয়ারের।


    তবে শৈশবের ক্লাবের টানে, সমর্থকদের অফুরন্ত ভালোবাসার দিকে চেয়ে আবারও ফুটবল মাঠে ফিরছেন রোবেন। অবসর ভেঙে ফেরার কারণ রোবেনের মুখেই শুনুন, “এই কঠিন সময়ে ক্লাবের সব ধরনের সাহায্যই প্রয়োজন। আমি বিষয়টি নিয়ে অনেক ভেবেছি যে কীভাবে ক্লাবকে এই প্রতিকূল সময়ে সাহায্য করা যায়। আমি ক্লাব এবং সমর্থকদের যারা ‘আরিয়েন, তোমার মনের কথা শোন’ ক্যাম্পেইন করেছিল তাদের অনেকের সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের সাথে কথা বলে আমি উদ্বুদ্ধ হয়েছি। আর এটাই এখন আমার মিশন।”

    “আমি ফিরে আসার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করছি। এই নতুন অধ্যায়ে সফল হব কিনা জানিনা। তবে আমার চেষ্টায় ঘাটতি থাকবে না। এফসি গ্রোনিঙ্গেনের জার্সি পরে খেলাটা আমার স্বপ্ন।”

    করোনাভাইরাসের কারণে ডাচ লিগের ২০১৯-২০ মৌসুম বাতিল হয়ে গেছে। বাতিল হওয়ার আগে এফসি গ্রোনিঙ্গেন টেবিলের নবম স্থানে অবস্থান করছিল। আগামী মৌসুমে লিগে দলের অবস্থানের উন্নতিতে রোবেনের দলে সংযুক্তি খুব করেই কাজে দিতে পারে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন