• ফুটবল, অন্যান্য
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    কাতার ২০২২ বিশ্বকাপ: ২১ নভেম্বর শুরু, ১৮ ডিসেম্বর ফাইনাল

    রাশিয়া ২০১৮ বিশ্বকাপের পর্দা নেমেছিল ১৫ জুন। ঠিক তার দুই বছর পর ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের দিন-ক্ষণ চূড়ান্ত করেছে ফিফা। ২১ নভেম্বর বায়েত স্টেডিয়ামে স্বাগতিক কাতারের ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে এশিয়ার দ্বিতীয় বিশ্বকাপ। বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায় শুরু হবে ম্যাচটি। আর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ডিসেম্বরের ১৮ তারিখ রাত ৯টায়,  ৮০ হাজার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন লুসাইল স্টেডিয়ামে।


    এশিয়ার বিশ্বকাপ হওয়ায় বেশিরভাগ ম্যাচই বাংলাদেশের দর্শকদের জন্য 'সুবিধাজনক' সময়েই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তবে এবারের বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে সবমিলিয়ে ২৭ দিনের। গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলো শেষ হবে মাত্র ১২দিনে। গ্রুপ পর্বে  প্রতিদিন ৪টি করে ম্যাচ আয়োজন হবে এবারের বিশ্বকাপে। গ্রুপ পর্বের পর নিয়ম অনুযায়ী দ্বিতীয় রাউন্ড, কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল, তৃতীয়স্থান নির্ধারনী ম্যাচের পর অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল। কাতারের গরমের কথা মাথায় রেখেই এর আগেই জুন-জুলাই থেকে সরিয়ে নভেম্বর-ডিসেম্বরে বিশ্বকাপ আয়োজনের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিল ফিফা।

    গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলো বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টা, সন্ধ্যা ৭টা, রাত ১০টা ও রাত ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় পর্ব ও কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচগুলো হবে রাত ৯টা ও রাত ১টায় এবং সেমিফাইনালের দুইটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে রাত ১টায়। ২০২২ বিশ্বকাপের জন্য এশিয়া অঞ্চলের বাছাইপর্ব শুরু হয়েছিল গতবছরই। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচগুলো চলতি বছর মার্চে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও সেটি পিছিয়ে গেছে করোনাভাইরাসের কারণে। সেপ্টেম্বর নাগাদ আবার শুরু হতে পারে দক্ষিণ আমেরিকার বাছাইপর্ব।  ইউরোপের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব আগামী বছর থেকে শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

    বিশ্বকাপ ও এশিয়া কাপের প্রাক বাছাইয়ে উত্তীর্ণ হওয়ার পর দ্বিতীয় পর্বে খেলছে বাংলাদেশ। গ্রুপ 'ই' -তে ৪টি ম্যাচ খেলে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১ পয়েন্ট। গ্রুপ পর্বের বাকি ৪টি ম্যা অক্টোবর ও নভেম্বরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। স্বাগতিক কাতার ছাড়াও বাংলাদেশের গ্রুপে রয়েছে ওমান, ভারত ও আফগানিস্তান।

    এশিয়া মহাদেশ এই নিয়ে মাত্র দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজন করতে যাচ্ছে ফুটবলের সবচেয়ে বড় ও সম্মানজনক এই টুর্নামেন্ট। এর আগে ২০০২ সালে জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া দুই দেশ মিলিয়ে বিশ্বকাপ আয়োজন করেছিল। এশিয়ার এক দেশের বিশ্বকাপ আয়োজন তাই এবারই প্রথম।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন