• ফুটবল, অন্যান্য
  • " />

     

    রিয়াল মাদ্রিদের রেকর্ডে ভাগ বসাল লিওঁ-র মেয়েরা

    জার্মান ক্লাব ভলফসবার্গকে ৩-১ গোলে হারিয়ে টানা পঞ্চমবারের মতো উইমেনস চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতল লিওঁ। এই জয়ের মাধ্যমে ইউরোপে টানা সাফল্যের দিক দিয়ে ছেলেদের রিয়াল মাদ্রিদ দলের রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছে লিওঁ-র মেয়েরা। ১৯৫৬ থেকে ১৯৬০ পর্যন্ত আলফ্রেদো ডি স্টেফানোদের রিয়াল মাদ্রিদও টানা ৫ বার ইউরোপসেরা হয়েছিল।


    স্পেনের সান সেবাস্তিয়ানে দুইবারের চ্যাম্পিয়ন ভলফসবার্গের বিপক্ষে ফেবারিট হিসেবেই নেমেছিল লিওঁ। প্রথমার্ধে জার্মান ক্লাবটিকে কোনো সুযোগ দেয়নি তারা। ২৫ মিনিটে ইউজেনি লে সমার এবং ৪৪ মিনিটে সাকি কুমাগাইয়ের গোলে এগিয়ে যায় ফ্রেঞ্চ ক্লাবটি।

    দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচ ফেরার চেষ্টা করেছিল ভলফসবার্গের মেয়েরা। ৫৮ মিনিটে দলটির মিডফিল্ডার আলেক্সান্দ্রা পপের গোলে ব্যবধান কমাতে সক্ষম হয় তারা। তবে নারী ফুটবলের অদম্য শক্তি লিওঁ তাতে ভড়কে যায়নি মোটেও। ম্যাচের শেষদিকে সারা বিয়র্ক গুনারসদত্তির আরও এক গোল করে রেকর্ড সপ্তমবারের মতো লিওঁ-র চ্যাম্পিয়নস লিগ জয় নিশ্চিত করেন।

    ২০১০-১১ মৌসুমে প্রথম উইমেনস চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছিল। লিওঁ। এরপর গত এক দশকে এই টুর্নামেন্টকে দারুণ ধারাবাহিকতার মাধ্যমে পুরোপুরিভাবে নিজেদের করে নিয়েছে ক্লাবটি।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন