• ফুটবল, অন্যান্য
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    'গোলরক্ষকরাও বাকিদের মতো ভুল করে', ক্লিভলির প্রথম পাঠ পেলেন রানা-সোহেলরা

    গোলরক্ষকরা আর বাকি সব পজিশনে খেলা ফুটবলারদের মতোই ভুল করতে পারেন। কিন্তু সেই ভুল যেন আত্মবিশ্বাসে প্রভাব ফেলতে না পারে সেটাই গুরুত্বপূর্ণ বাংলাদেশের নতুন গোলরক্ষক কোচ লেস ক্লিভলির কাছে। সাবেক ক্রিস্টাল প্যালেস গোলরক্ষক কোচ বাংলাদেশে এসেছেন অভিজ্ঞতার ঝুলি নিয়ে। রবিবার প্রথমবারের মতো তার অধীনে অনুশীলন করেছেন নেপালের বিপক্ষে ম্যাচের জন্য দলে ডাক পাওয়া চার গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা, শহীদুল আলম সোহেল, আনিসুর রহমা জিকো ও পাপ্পু আহমেদ।


    সাউদাম্পটনের হয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা ক্লিভলি খেলেছেন ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ স্তরে। এরপর ক্রিস্টাল প্যালেসসহ (মূল দলে), ইংল্যান্ডের বিভিন্ন একাডেমিতে কোচ হিসেবে কাজ করেছেন ক্লিভলি। এর আগে বাংলাদেশের গোলরক্ষক কোচের দায়িত্বে ছিলেন ববি মিমস। তার সঙ্গে বাফুফের চুক্তি নবায়ন না হওয়ায় নতুন কোচ হিসেবে এসেছেন মিমসের চেয়েও অভিজ্ঞতায় এগিয়ে থাকা ক্লিভলি।

    বাংলাদেশ গোলরক্ষকদের নিয়ে প্রথম দিন কাজ করার পর ক্লিভলি বলছেন, গোলরক্ষকরা যাতে ভুল করতে ভয় না পায় সেটা নিয়েই কাজ করতে চান তিনি। তার দর্শন অনুযায়ী, ভুলের ভয় কাটিয়ে উঠলে গোলরক্ষকরা হবেন আরও আত্মবিশ্বাসী, "আমরা প্রথমদিন টেকনিক্যাল কিছু ব্যাপারে কাজ করেছি। গোলরক্ষকরাও যে ভুল করতে পারে, আর এটা যে স্বাভাবিক ঘটনা- এটা বুঝতে পারলেই মানসিকভাবে তারাও এটাকে সহজভাবেই নেবে।" 

    "আমরা যদি টেকনিক্যাল দিকগুলোয় উন্নতি ঘটাতে পারি তাহলে ভুলগুলো ক্রমেই কমে আসবে। টেকিনিক্যালি যত ভালো, ভুল ততো কম- কিন্তু সেটা অর্জন করতে হলে আমাদের গভীরভাবে কাজ করতে হবে। আমরা তাদের নিয়ে যত কাজ করব ততোই তারা আত্মবিশ্বাসী হওয়ার সুযোগ পাবে।"

    প্রথমদিনের অনুশীলনটাকে অবশ্য 'ফান ট্রেনিং' বলছেন, গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা, "এটা আসলে ফান ট্রেনিংয়ের মতো। আমাদের হাতে ওয়েট দিয়ে রেখেছিলেন। হাতে ওয়েট নিয়েও আমরা যেন নিজেদের প্রেসারাইজ করে বলটার দিকে ফোকাস রাখতে পারি। জটলার মধ্যে অনেকসুয় তিন-চারজন খেলোয়াড়কে পুশ করে আমাদের বলের কাছে যেতে হয়। ওরকম একটা চাপই তৈরি করা হয়েছিল।" 

    ১৩ নভেম্বর নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফেরার কথা রয়েছে বাংলাদেশের।  খেলোয়াড়দের অনুশীলন আগেই শুরু হয়ে গিয়েছিল। পুরো কোচিং দল আর স্কোয়াড মিলে আজই প্রথম অনুশীলন সেরেছে বাংলাদেশ। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন