• ইউরোপিয়ান সুপার লিগ
  • " />

     

    উত্তাল ইউরোপিয়ান ফুটবল : ৪৮ ঘন্টায় শেষ সুপার লিগ?

    উত্তাল ইউরোপিয়ান ফুটবল : ৪৮ ঘন্টায় শেষ সুপার লিগ?    

    ইউরোপিয়ান সুপার লিগের ঘোষণা আসার একদিনের মধ্যেই টালমাটাল ইউরোপ ফুটবল অঙ্গন। সাথে সাথেই প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন প্রাক্তন খেলোয়াড়-কোচেরা। ধীরে ধীরে মুখ খুলেছেন বর্তমান কোচ আর অধিনায়কেরাও। সবাই ঘোরতর বিরোধী এই সুপার লিগের। ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ যতই বলুন না কেন ফুটবলকে বাঁচানোর জন্যই এই সুপার লিগ, ফুটবল সংশ্লিষ্ট লোকজন তা মানতে নারাজ। বারবার বলছেন, ফুটবলের অবকাঠামোই ভেঙ্গে পড়বে এতে। যারা প্রাণ এই ফুটবলের, সেই ফুটবল-ফ্যানরাই রীতিমত বিক্ষোভ করছে রাস্তায় নেমে। ক্লাবের সামনে ব্যানার-প্লেকার্ড নিয়ে স্লোগান দিচ্ছে ক্লাব মালিকদের বিরুদ্ধে। এমনকি সরকারও চাপ প্রয়োগ করছে ক্লাবের দিকে। 

    এই বিরুদ্ধস্রোতে অবশেষে টনক নড়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষের। প্রথমে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি, জানিয়েছিল তারা সরে দাঁড়াচ্ছে নতুন প্রস্তাবিত এই সুপার লিগ থেকে। এরপর একে একে সরে দাঁড়িয়েছে চেলসি, লিভারপুল, আর্সেনাল, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড আর টটেনহাম। পাশাপাশি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের এক্সিকিউটিভ ভাইস-চেয়ারম্যান এড উডওয়ার্ড সরে দাঁড়াচ্ছেন পদ থেকে, নিশ্চিত করেছেন ক্লাব কর্তৃপক্ষ। তবে ২০২১ সালের শেষ পর্যন্ত দায়িত্বে থাকবেন তিনি। 

    পরে আনুষ্ঠানিক এক বিবৃতিতে ইউরোপিয়ান সুপার লিগ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই আয়োজনের প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করে দেখবে তারা। 


     লাইভ ব্লগ: ইউরোপিয়ান ফুটবলের খ্যাপাটে রাত


    এর আগে বায়ার্ন মিউনিখ আর পিএসজি আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে বলেছে যে, তারাও এই প্রজেক্টে উৎসাহী নন। সব মিলিয়ে ভেস্তে যেতে বসেছে আন্দ্রেয়া আনিয়াল্লি-ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের উদ্যোগে নেওয়া এই সুপার লিগের প্রজেক্ট।  

    ১২টি ক্লাব নিয়ে যাত্রা শুরুর ঘোষণা দিয়েছিল ইউরোপিয়ান সুপার লিগ। সেখানে স্পেন থেকে আছে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা ও অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। ইংল্যান্ডে ম্যান ইউনাইটেড, ম্যান সিটি, লিভারপুল, আর্সেনাল, টটেনহাম, চেলসি। আর ইতালি থেকে জুভেন্টাস, ইন্টার মিলান ও এসি মিলান। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন