• আইপিএল ২০২১
  • " />

     

    আইপিএল স্থগিত: অস্ট্রেলিয়ানদের গন্তব্য মালদ্বীপ, সাকিব-মোস্তাফিজ ফিরতে পারেন বিশেষ ব্যবস্থায়

    আইপিএল স্থগিত: অস্ট্রেলিয়ানদের গন্তব্য মালদ্বীপ, সাকিব-মোস্তাফিজ ফিরতে পারেন বিশেষ ব্যবস্থায়    

    অন্তত চারটি ফ্র্যাঞ্চাইজিতে করোনা-সংক্রমণের পর স্থগিত করা হয়েছে আইপিএলের ২০২১ সালের আসর। কদিন আগেই এক বার্তায় বিসিসিআই বলেছিল, আইপিএলের বায়ো-সিকিউর বলয়ে সবাই নিরাপদ, টুর্নামেন্ট শেষে সবাইকে ঠিকঠাক পরিবারের কাছে পৌঁছে দেওয়ার সবরকম ব্যবস্থা করবে তারা। তবে বায়ো-সিকিউর বলয় নিরাপদ থাকেনি, বিসিসিআই কর্মকর্তাদের কথা অনুযায়ী, পজিটিভ কেস ধরা পড়ার পর একরকম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে বিদেশী ক্রিকেটারদের মাঝে। সেসব বিবেচনা করেও আইপিএল স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। 

    আইপিএল স্থগিত হওয়ার পর জটিলতা তৈরি হয়েছে বিদেশী ক্রিকেটারদের ফেরা নিয়েও। এক বিবৃতিতে বিসিসিআই বলেছে, তারা তাদের ক্ষমতার মাঝে অংশগ্রহণকারীদের সবার নিরাপদে ফেরার সবরকম ব্যবস্থা করবে। তবে সে ক্ষমতা কাজ করছে না সব দেশের ক্ষেত্রে। 

    বাংলাদেশ 

    আপাতত ভারতের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ বাংলাদেশের, তবে সাকিব আল হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমান ভাড়া করা বিমানে বিশেষ ব্যবস্থায় ফিরতে পারেন। সরকারের নিয়ম অনুযায়ী, ভারত থেকে ফেরা কারও জন্য ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক। সাকিব-মোস্তাফিজকেও সে নিয়ম মানতে হবে, জানিয়েছে ক্রিকইনফো। 

    এমনিতেও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জন্য আইপিএল শেষ করার আগেই দেশে ফেরার কথা ছিল দুজনের। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ শুরু হতে পারে ২৩ মে, দুজনই আছেন এরই মাঝে ঘোষিত প্রাথমিক স্কোয়াডে। সেক্ষেত্রে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনের পর দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন তারা। 

    অস্ট্রেলিয়া 

    আইপিএলে খেলা বিদেশী ক্রিকেটারদের মাঝে সবচেয়ে বেশি ঝামেলার মধ্যে পড়েছেন অস্ট্রেলিয়ানরাই। শুধু ক্রিকেটার নন, কোচ-কমেন্টেটর-ম্যাচ অফিশিয়াল মিলিয়ে প্রায় ৪০ জন আছেন ভারতে। তবে আপাতত তারা ফিরতে পারছেন না দেশে। 

    অস্ট্রেলিয়া সরকারের নিয়ম অনুযায়ী, ১৫ মে-র আগে ভারত থেকে ফেরা কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না সে দেশে। সে নিয়ম ভঙ্গ করলে সেটিকে বিবেচনা করা হবে ফৌজদারি অপরাধ হিসেবে। আইপিএল স্থগিত হওয়ার পর এক যৌথ বিবৃতিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ও অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটারস অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, বিসিসিআইয়ের সঙ্গে এ ব্যাপারে তারা কাজ করলেও সরকারের কাছে নির্ধারিত সময়ের আগে দেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে বিশেষ আবেদন করা হবে না। 

    সেক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ানদের আপাতত গন্তব্য হবে মালদ্বীপ। এরই মাঝে অস্ট্রেলিয়ান সরকারের নিয়মে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখানো কমেন্টেটর মাইকেল স্ল্যাটার রওনা দিয়েছেন সেখানে, প্যাট কামিন্স, স্টিভেন স্মিথ, রিকি পন্টিং, সাইমন ক্যাটিচ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েলরাও তেমন করবেন বলে জানিয়েছে ক্রিকইনফো। 

    তবে ভারত থেকে ফেরা নিষিদ্ধ হওয়ার নিয়ম কার্যকর হওয়ার আগেই আইপিএল ছেড়ে গিয়েছিলেন অ্যাডাম জ্যাম্পা, কেন রিচার্ডসন, অ্যান্ড্রু টায়। ফিরতে গিয়েও শেষ পর্যন্ত সে সুযোগ মিস করে গেছেন আম্পায়ার পল রাইফেল। 

    নিউজিল্যান্ড 

    অস্ট্রেলিয়ার প্রতিবেশি নিউজিল্যান্ডের ক্ষেত্রে অবশ্য এতো ঝামেলা নেই আপাতত। ফিরতে চাইলে দেশে গিয়ে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে তাদের। তবে ভারতের সঙ্গে তাদের ফ্লাইট চলছে সীমিত আকারে। 


    যুক্তরাজ্য 

    ভারত থেকে ফেরা ব্যক্তিদের সে দেশে প্রবেশ নিষিদ্ধ নয়, তবে সেক্ষেত্রে হতে হবে সে দেশের নাগরিক। অস্ট্রেলিয়ার ড্যান ক্রিশ্চিয়ানের যেমন খেলার কথা টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে, তবে আপাতত তিনিও যেতে পারবেন না সেখানে। 

    এমনিতে ভারত থেকে ফিরলে দশদিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে যুক্তরাজ্যে ফিরে, যেতে হবে দুটি টেস্টের মাঝ দিয়ে। 

    দক্ষিণ আফ্রিকা 

    চাইলেই ভারত থেকে যে কেউ যেতে পারবেন দক্ষিণ আফ্রিকায়। তবে থাকতে হবে কোয়ারেন্টিনে। ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভারত থেকে ফেরা ক্রিকেটাররা দেশে ফিরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়ম মেনে ১৪ দিনের হোম-কোয়ারেন্টিনে থাকবেন। 

    আরব-আমিরাত 

    ভারত থেকে লম্বা ভ্রমণের ক্ষেত্রে সাধারণত ট্রানজিট থাকে সেখানে। তবে কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ভারতের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ রেখেছে এ দেশটিও। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন