• অন্যান্য
  • " />

     

    ইউরোপিয়ান শীর্ষ লিগঃ কারা জিতছে শিরোপা, চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলছে কারা?

    ইউরোপিয়ান শীর্ষ লিগঃ কারা জিতছে শিরোপা, চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলছে কারা?    

    ইউরোপিয়ান ফুটবল মৌসুম এখন প্রায় শেষের দিকে। শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে তিনটিরই শিরোপা নিশ্চিত হয়ে গেছে, বাকি আছে শুধু লা লিগা ও ফ্রেঞ্চ লিগের। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগে জায়গা নিয়ে লড়াই চলছে সব লিগেই। 

    প্রিমিয়ার লিগ

    চ্যাম্পিয়ন

    ইংলিশ লিগে এর মধ্যেই শিরোপা নিশ্চিত করে ফেলেছে ম্যান সিটি, লেস্টারের কাছে ম্যান ইউনাইটেডের হারেই নিশ্চিত হয়ে গেছে গার্দিওলার আরেকটি ট্রফি। 

    চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

    শীর্ষ চারের লড়াইয়ে ম্যান সিটির সঙ্গে ম্যান ইউনাইটেডও নিশ্চিত করে ফেলেছে চ্যাম্পিয়নস লিগ। তবে পরের দুটি জায়গা নিয়ে জোর লড়াই চলছে। ইউনাইটেডকে হারিয়ে লেস্টার উজ্জ্বল করেছে তিনে থাকার আশা। তাদের পয়েন্ট ৬৬, আর চেলসি কাল আর্সেনালের কাছে হেরে যাওয়ায় তাদের পয়েন্ট রইল ৬৪ই। আপাতত এই দুইটি দলই এগিয়ে আছে, তবে আশা আছে লিভারপুল ও ওয়েস্ট হামেরও। লিভারপুল ৫৭ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে আছে, তবে লেস্টার-চেলসির চেয়ে দুইটি ম্যাচ কম খেলেছে তারা। আর লিভারপুলের চেয়ে এক ম্যাচ বেশি খেলে ওয়েস্ট হাম ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে আছে পাঁচে। 

    রেলিগেশন

    ইংলিশ লিগে রেলিগেশনের লড়াই শেষ দিন পর্যন্ত চললেও এবার সেটা নিশ্চিত হয়ে গেছে আগেভাগেই। সবার আগে নেমে গেছে শেফিল্ড, এরপর তাদের পথে নেমেছে ওয়েস্ট ব্রম ও ফুলহাম। এই প্রথম তিন ম্যাচ আগেই প্রিমিয়ার লিগের তিনটি দলই নিচে নেমে গেছে। 

    লা লিগা

    চ্যাম্পিয়ন

    লা লিগার চ্যাম্পিয়ন নিয়ে এরকম শেষ মুহূর্তের নাটক দেখা যায়নি অনেক দিন। এক সপ্তাহ আগেও বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ ও অ্যাটলেটিকোর সমান সম্ভাবনা থাকলেও লেভান্তের কাছে বার্সার ড্রয়ে পিছিয়ে গেছে তারা। সোসিয়েদাদকে হারিয়ে অ্যাটলেটিকো চলে এসেছে কাছাকাছি, আর দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট পেলেই তারা চ্যাম্পিয়ন। রিয়ালের আশা এখনো আছে, তারা গ্রানাডাকে হারালে  অ্যাটলেটিকর চেয়ে দুই পয়েন্ট পেছনেই থাকবে। যদিও রিয়ালকে তাকিয়ে থাকতে হবে অ্যাটলেটিকোর হোঁচট খাওয়ার দিকেই। হেড টু হেডে এগিয়ে থাকায় সুযোগটা এখনো শেষ হয়ে যায়নি জিনেদিন জিদানের দলের।

    চ্যাম্পিয়নস লিগ

    রিয়াল, বার্সা, অ্যাটলেটিকো তো আছেই, সেই সঙ্গে সেভিয়াও চ্যাম্পিয়নস লিগ নিশ্চিত করে ফেলেছে অনেক আগে।

    রেলিগেশন 

    ২৯, ৩০, ৩১পিয়েন্ট নিয়ে রেলিগেশন জোনে আছে এইবার, এলচে ও ভায়াদোলিদ। তবে ৩৩, ৩৪ ও ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে খুব একটা স্বস্তিতে নেই হুয়েস্কা, গেতাফে ও আলাভেসও। 

     

    সিরি আ 

    চ্যাম্পিয়ন

    জুভেন্টাসের নয় বছরের আধিপত্য ভেঙে গত সপ্তাহেই সিরি আর শিরোপা নিশ্চিত করেছে আন্তোনিও কন্তের ইন্টার মিলান। 

    চ্যাম্পিয়নস লিগ

    চ্যাম্পিয়নস লিগের বাকি তিন জায়গার জন্য জোর লড়াই চলছে চার দলের ভেতর। ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে দুই ও তিনে আছে আটালান্টা ও মিলান। নাপোলির পয়েন্ট ৭৩, জুভেন্টাস ৭২ পয়েন্ট নিয়ে আছে পাঁচে। সবার দুইটি করে ম্যাচ বাকি।

    রেলিগেশন

    রেলিগেশন নিশ্চিত হয়ে গেছে ক্রোটোনে ও পার্মার, প্রায় নিশ্চিত বেনেভেন্তোরও। 

    জার্মান বুন্দেসলিগা 

    আরও একবার হেসেখেলেই শিরোপা নিশ্চিত করেছে বায়ার্ন, এবার তিন ম্যাচ হাতে রেখেই।

    চ্যাম্পিয়নস লিগ

    ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে লাইপজিগের দুইয়ে থাকা প্রায় নিশ্চিত। তবে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে ভলফসবুর্গ, ৫৮ নিয়ে ডর্টমুন্ড ও ৫৭ নিয়ে ফ্রাংকফুর্ট আছে বাকি দুইটি স্থান দখলের লড়াইয়ে। 

    রেলিগেশন 

    অনেক বছর পর শালকে নেমে যাচ্ছে বুন্দেসলিগা থেকে, তাদের সঙ্গী হতে পারে কোলন।

     

    ফ্রেঞ্চ লিগ

    চ্যাম্পিয়ন

    লা লিগার মতো এখানেও চলছে এখনো লড়াই। ৭৯ পয়েন্ট নিয়ে লিল শিরোপায় প্রায় এক হাত দিয়ে রেখেছে, বাকি দুই ম্যাচে একটি জয় পেলেই নিশ্চিত হয়ে যাবে তাদের শিরোপা। ৭৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে থাকা পিএসজিকে এখন অপেক্ষা করতে হচ্ছে মিরাকলের জন্য।

    চ্যাম্পিয়নস লিগ 

    ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে মোনাকো ও ৭৩ পয়েন্ট নিয়ে লিঁওর শিরোপা সম্ভাবনা কাগজে কলমে এখনো আছে। তবে শিরোপা না জিতলেও চ্যাম্পিয়নস লিগের তিন নম্বর জায়গার জন্য জোর লড়াই থাকবে এই দুই ক্লাবের মধ্যে।

    রেলিগেশন

    দিজন এর মধ্যেই রেলিগেটেড হয়ে গেছে, শংকায় আছে নিমসও।

     

     

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন