• ইউরো
  • " />

     

    গ্রিজমান নন, পেপেই সেরা!

    ছয় গোল করে গোল্ডেন বুট ফাইনালের আগেই একরকম নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল। পরে টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়ের গোল্ডেন বলের পুরস্কারও উঠেছে আঁতোইন গ্রিজমানের হাতে। কিন্তু সাবেক ফ্রেঞ্চ খেলোয়াড় ফ্রাঙ্ক লেবোফের দাবি, পুরস্কারটা গ্রিজমানের প্রাপ্য নয়। বরং সেটি পেপে বা গ্যারেথ বেলের হাতে যেতে পারত।

    টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে বিবর্ণ ছিলেন গ্রিজমান। পরের ম্যাচে প্রথম একাদশেই জায়গা পাননি। তবে বদলি হিসেবে নেমে গোল করেছিলেন। সেমিফাইনালেই নিজের সেরাটা দেখিয়েছেন গ্রিজমান, জার্মানির সঙ্গে করেছেন জোড়া গোল। ফাইনালে আবার সহজ কিছু সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি। লেবোফের যুক্তি, ফ্রেঞ্চ ফরোয়ার্ড প্রতিটি ম্যাচে ধারাবাহিক ছিলেন না। সেকারণে পুরস্কারটা তাঁর প্রাপ্য নয়, “আমি উয়েফার সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত নই। উয়েফার কাজ করার ধরনটাই এমন। আর যে গোল করে তাকেই ম্যাচসেরার পুরস্কার দেওয়া হয়।”

    গ্যারেথ বেল বা পেপের কথাও টেনে আনলেন, “পেপের কথাই ধরুন, বা বেল যেভাবে ওয়েলসকে টেনে নিয়ে গেছে সেটা দেখুন। এরা আসলেই দারুণ করেছে। পেপে প্রথম থেকে শেষ ম্যাচ পর্যন্ত দারুণ ফর্মে ছিল। গ্রিজমান তো দ্বিতীয় ম্যাচ খেলেইনি। আর ফাইনালে গ্রিজমান দুইটি সহজ সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি। মাঠেও সেভাবে খুঁজে পাওয়া যায়নি। আমি গ্রিজমানকে অনেক পছন্দ করি, কিন্তু টুর্নামেন্ট সেরা হওয়ার মতো ও খেলতে পারেনি।” পেপে অবশ্য সব ম্যাচ খেলেননি, চোটের জন্য সেমিফাইনালে ওয়েলসের সঙ্গে ম্যাচে দর্শক হয়ে ছিলেন।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন