• ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ান
  • " />

     

    লাথি মেরে ক্লাব ছাড়তে হলো এভরাকে

     

    ২ নভেম্বর ইউরোপা লিগের ম্যাচের আগে ভক্তকে লাথি মেরে সমালোচিত হয়েছিলেন, পেতে হয়েছিল এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞাও। এবার সেই ঘটনার পর প্যাট্রিস এভরার সাথে চুক্তি বাতিল করেছে ফরাসি ক্লাব মার্শেই। একই সাথে আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সব ধরনের ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্ট থেকেও নিষিদ্ধ হয়েছেন এভরা।

     

     

     

    ম্যাচের আগে অনুশীলনের সময় সাইডলাইনে থাকা কিছু ভক্ত এভরাকে ‘বিরক্ত’ করছিল। শেষ পর্যন্ত ধৈর্যের বাধ ভেঙ্গে যাওয়ায় সজোরে লাথি মেরে বসেন একজনকে। তাঁর এই আচরণে কিছুটা উত্তেজনা ছড়ায় দর্শক ও ফুটবলারদের মাঝে। রেফারি ম্যাচের আগেই কার্ড দেখিয়ে এভরাকে দর্শকসারিতে পাঠিয়ে দেন। পরবর্তীতে এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়, ইউয়েফার তদন্তেরও ঘোষণা আসে।

    তদন্ত শেষে ইউয়েফা ২০১৮ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত ইউরোপিয়ান টুর্নামেন্ট থেকে এভরাকে নিষিদ্ধ করে। মার্শেইয়ের সাথে আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হয়, ক্লাবের সাথে এভরার চুক্তিটাও আর থাকছে না, “দুই পক্ষের সম্মতিক্রমে এটা সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, এভরার চুক্তি এখনি শেষ করা হবে। তাঁর এরকম ব্যবহার মেনে নেওয়া যায় না। এটা ক্লাবের ভাবমূর্তিকেও নষ্ট করেছে। একই সাথে তাকে খারাপ কথা বলা ভক্তদের ব্যাপারটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

    লাথি মারার ঘটনায় এভরাকে ১০০০০ ইউরো জরিমানা করেছে ইউয়েফা। মার্শেই প্রেসিডেন্ট জ্যাক হেনরি বলছেন, এভরার মতো অভিজ্ঞ ফুটবলারের থেকে এরকম আচরণ আশা করেননি, “আজ আমাদের জন্য খুবই কষ্টের দিন। এভরা জানেন তাঁর ওই কাজটা কত খারাপ ছিল, আজ থেকে তিনি মার্শেইয় হয়ে খেলার যোগ্যতা হারিয়েছেন। মার্শেইর ওই ভক্তদেরও দোষ আছে। আশা করি এসব ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসবে।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন