• ত্রিদেশীয় সিরিজ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    'বাজে ক্রিকেট খেলার জন্যই হেরেছি'

    প্রথম তিন ম্যাচের দাপুটে জয়ে উড়ছিল বাংলাদেশ। তবে আজ মুদ্রার উল্টোপিঠটাও দেখলেন সাকিব-তামিমরা। শ্রীলংকার বিপক্ষে ১০ উইকেটের বড় পরাজয়ের পর দলের অধিনায়ক মাশরাফি বলছেন, বাজে ক্রিকেট খেলার কারণেই এমন হার।

    আজকের বাংলাদেশকে দেখলে বোঝার উপায় নেই, এই দলটাই ছড়ি ঘুরিয়েছে আগের ম্যাচগুলোতে। মুশফিক, সাব্বির ছাড়া দুই অংক পেরোতে পারেননি কেউই। এই পরাজয়টা ‘হজম’ হচ্ছে না মাশরাফির, ‘আমরা জানি যে শ্রীলঙ্কা আমাদের হারাতে পারে। কিন্তু এভাবে আমরা হারব সেটা কেউই প্রত্যাশা করিনি। ড্রেসিং রুমের কেউই এটা বিশ্বাস করবে না যে আমাদেরকে শ্রীলঙ্কা হারাতে পারে না। শেষ তিন ম্যাচ এভাবে খেলার পর এভাবে হারব সেটা হয় না। আমার কাছে মনে হয়, যেভাবে আমরা শেষ তিন ম্যাচ খেলেছি সেভাবেই আমাদের চিন্তা করতে হবে। সামনে আমাদের ইতিবাচক ক্রিকেট খেলতে হবে। হয়তোবা এটা আমাদের জন্য ভালো একটা ‘ওয়েকআপ কল’ ছিল ফাইনালের আগে। হয়তো আমাদের নার্ভটা আরেকটু শক্ত হবে।’


    টসে জিতে নির্দ্বিধায় ব্যাটিং নিয়েছিলেন বড় স্কোরের আশায়। পড়ে অবশ্য ব্যাটসম্যানদের আসা যাওয়ার মিছিলই দেখেছেন মাশরাফি। ব্যাটিং বিপর্যয়ের জন্য পিচকে দুষছেন না তিনি, ‘তামিম একটু আচমকা বাউন্সে আউট হয়েছে। এমন না যে সে ‘রাশ শট’ খেলতে যেয়ে আউট হয়েছে। কিন্তু এরপরও তামিম অভিযোগ করেনি। সাকিব দুইটা শট খেলার পর সাকিবও স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করছিল। যারা মোটামুটি সময় কাটিয়েছে তারা বলেছে যে উইকেট ততটা খারাপ ছিল না। মুশফিকও কিন্তু আজ ভাল ব্যাট করছিল। ওই পাশ থেকে সমর্থন পায়নি। আমি আশা করছি যে এই ধরনের পরিস্থিতিতে তারা আরেকটু সময় কাটাক। আর উইকেটের কথা যেটা বললেন ভালো উইকেটই আমরা আশা করছি ওয়ানডে ম্যাচে। আজকে ব্যাটসম্যানরা যেটা বলেছে ভালো উইকেট কাজেই অভিযোগের জায়গা তো দেখি আর।’

    প্রথম দুই ম্যাচেই ফাইনাল নিশ্চিত করেছিল বাংলাদেশ। তৃতীয় ম্যাচেও জিম্বাবুয়েকে হারাতে বেশি বেগ পেতে হয়নি। টানা ৩ ম্যাচ জয়ের পর অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের কারণেই কি আজকের এমন পরাজয়? মাশরাফি অবশ্য পরাজয়ের জন্য বাজে ব্যাটিংকেই দায়ী করলেন, ‘সত্যি কথা বলতে কি কাল রাতের মিটিং বলেন কিংবা আজ, কারো ভেতর এমন দেখিনি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী হওয়ার সুযোগ ছিল না, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তো না-ই। আমরা খুবই বাজে ক্রিকেট খেলেছি। আমার কাছে মনে হয় এটা বলাই ঠিক। আবার এটা বলতে পারি যে একটা বাজে দিন গিয়েছে। আমি বলব বাজে ক্রিকেটই খেলেছি।’


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন