• ক্রিকেট

দাদা-বাবার পর ডাবল সেঞ্চুরি করলেন নাতিও

দাদা ছিলেন পাকিস্তানের বিখ্যাত ক্রিকেটার হানিফ মোহাম্মদ। বাবা শোয়েব মোহাম্মদ হানিফের মতো খ্যাতি না পেলেও ঘরোয়া লিগে বেশ ভালোই নাম কামিয়েছিলেন। শেহজার মোহাম্মদের তো রক্তেই আছে ক্রিকেট! দাদা-বাবার মতো এবার সেঞ্চুরি পেলেন শেহজারও। করাচী হোয়াইটসের হয়ে খেলতে নেমে মুলতানের বিপক্ষে করেছেন ২৬৫ রান। একই পরিবারের তিনজন সদস্যের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি পাওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম।

শুধু কী দাদা আর বাবা? শেহজার তার পরিবারের ১১তম সদস্য যিনি ক্রিকেট খেলছেন। আগের দশজনের মাঝে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন পাঁচ জন। হানিফ ও শোয়েবের পাশাপাশি হানিফের ভাই সাদিক ও মুশতাক, সাদিকের ছেলে ইমরানও করেছিলেন ঘরোয়া ক্রিকেটে সেঞ্চুরি।

কায়েদে আজম ট্রফিতে করাচীর হয়ে খেলতে নেমে পরিবারের ষষ্ঠ সদস্য হিসেবে সেঞ্চুরি পেয়েছেন শেহজার। শুধু সেঞ্চুরিই করেননি, করেছেন ডাবল সেঞ্চুরিও। নিজের ৩৬ তম ম্যাচে খেলতে নেমে ৪৬৪ বল খেলে করেছেন ২৬৫, মেরেছেন ৩০টি চার ও একটি ছয়। ঘরোয়া ক্রিকেটে শেহজারের দাদা হানিফের সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ৪৯৯, বাবা শোয়েবের ছিল ২০৮।

ছেলের এমন কীর্তিতে দারুণ খুশি শোয়েব, বলছেন, বেঁচে থাকলে সবচেয়ে খুশি হতেন হানিফ মোহাম্মদই, ‘এটা আমাদের পরিবারের জন্য গর্বের মুহূর্ত। আমাদের রক্তে যে ক্রিকেট, এটা সেটাই প্রমাণ করেন। আজ যদি হানিফ মোহাম্মদ বেঁচে থাকতেন, নাতির ডাবল সেঞ্চুরি থেকে সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন তিনিই।’

২৬ বছর বয়সী শেহজার কি পারবেন দাদার মতো পাকিস্তানের হয়ে খেলতে?