• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    অদ্ভুত গোল, লাল কার্ডের ম্যাচ জিতে চারে আর্সেনাল

    ওয়াটফোর্ডকে ১-০ গোলে হারিয়ে প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট তালিকার চারে উঠে গেছে আর্সেনাল। ম্যাচের ১০ মিনিটে পিয়ের এমেরিক অবামেয়াংয়ের পরিশ্রম আর ওয়াটফোর্ড গোলরক্ষক বেন ফোস্টারের অসকর্তা গোল পাইয়ে দিয়েছিল আর্সেনালকে। গোল হজমের পরই লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ওয়াটফোর্ড অধিনায়ক ট্রয় ডিনি। তবে ভিকারেজ রোড স্টেডিয়ামে এরপরও দশ জনের ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত লড়াই করতে হয়েছে আর্সেনালকে।

    ভালো শুরুর পরও বেন ফোস্টারের এক ভুলে পিছিয়ে পড়েছিল ওয়াটফোর্ড। ডিবক্সের ভেতর তার পায়ে ছিল বল, ব্যাক পাস পেয়েছিলেন। বল ক্লিয়ার করারও যথেষ্ট সময় ছিল তার হাতে। কিন্তু অবামেয়াং সেই সুযোগ দিলেন না তাকে। ফোস্টারের তাড়াহুড়ায় নেওয়া শট ব্লক করে বসেন অবামেয়াং। সেটাই পরে পরিণত হয় গোলে।

    অদ্ভুত এক গোল হজমের পর ওয়াটফোর্ডের কপালের অপেক্ষা করছিল আরও দুর্দশা। লুকাস তোরেয়েরাকে বল দখলের সময় কনুই মেরেছিলেন ডিনি। রেফারি তাকে সোজাসুজি লাল কার্ড দেখিয়ে ঘরের সমর্থকদের অবিশ্বাস দেন আরও বাড়িয়ে।


     

    ওয়াটফোর্ড ম্যানেজারের জন্য তাই শুরুতেই আরও কঠিন হয়ে গিয়েছিল কাজটা। তবে ১০ জনের দল নিয়ে ৮০ মিনিট খেললেও বুক চিতিয়ে লড়াই করে গেছে ওয়াটফোর্ড। দ্বিতীয়ার্ধে গোলের সবচেয়ে কাছে গিয়েছিলেন অ্যাডাম মাসিনা। দূর থেকে করা তার শট বারপোস্টে লেগে ফেরত আসে। এছাড়াও আর্সেনাল গোলরক্ষক বার্নড লেনোকেও বেশ কয়েকবার দারুণ সেভ করে আটকে রাখতে হয় ওয়াটফোর্ডকে।

    ডিনির লাল কার্ডের কিছুক্ষণ পর ক্রিগ ক্যাথচার্টকে ফেরান লেনো। প্রথমার্ধের শেষদিকে গোলে পরিণত হতে যাওয়া কাপুর ফ্রি কিকও ঠেকিয়ে দেন গানারদের জার্মান গোলরক্ষক। এছাড়াও ম্যাচের ১০ মিনিটে বাকি থাকতে মাতিলান্ড নেইলসের একটি ব্লকও বাঁচিয়েছে আর্সেনালকে।

    ওয়াটফোর্ডের তুলনায় আর্সেনাল সেভাবে নিশ্চিত গোলের সুযোগ পেয়েছে কমই। দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি সময় হেনরিখ মিখিতারিয়ানকে নিশ্চিত গোল থেকে বঞ্চিত করেছেন ফোস্টার। কিন্তু তার প্রথমার্ধের ভুলটাই শেষ পর্যন্ত হয়ে থেকেছে ম্যাচের মূল গল্প।

     

     

    ৩৩ ম্যাচে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে তাই আর্সেনাল টপকে গেছে চেলসি ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে। চেলসির চেয়ে গানাররা এগিয়ে গোলব্যবধানে আর ইউনাইটেডের চেয়ে দুই পয়েন্টে। তবে দুই ক্লাবের চেয়ে একটি করে ম্যাচ বেশি আছে উনাই এমেরির দলের। সঙ্গে আরও একটা স্বস্তিও জুটেছে তার। শেষ ১৩ অ্যাওয়ে ম্যাচে প্রথমবারের মতো জয় পেয়েছে তার দল। আর এই মৌসুমে প্রথমবারের মতো অ্যাওয়ে ম্যাচে জুটেছে ক্লিনশিটও। তবে অ্যাওয়ে ম্যাচে ফল পেলেও, দলের পারফরম্যান্স কি খুশি করতে পেরেছে এমেরিকে?